ভারতকে হারাতে লাগবে ২৩০ রান

মেয়েদের ওয়ানডেতে এর আগে কখনোই ভারতকে হারাতে পারেনি বাংলাদেশ। আজ হ্যামিল্টনে সেই ইতিহাস বাংলাদেশের মেয়েরা যদি গড়তে চায় তাহলে তাদের করতে হবে ২৩০ রান। মেয়েদের ওয়ানডে বিশ্বকাপের ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৭ উইকেটে ২২৯ রান তুলেছে ভারত।

স্মৃতি মান্ধানা আর শেফালি ভর্মার উদ্বোধনী জুটি ছিল দুর্দান্ত। পাওয়ার প্লেতে ৫২ রান তুলে তারা ১৫ ওভারের মধ্যেই পৌঁছে গিয়েছিল ৭৪–এ। কিন্তু এর পরপরই বিপর্যয়। ৩০ রানে নাহিদা আক্তারের বলে স্মৃতি ফারজানা হককে ক্যাচ দেন। স্কোরবোর্ডে কোনো রান যোগ না করেই এরপর আরও দুই উইকেট হারায় ভারত। ঋতু মনি পরপর দুই বলে ফেরান শেফালি ও অধিনায়ক মিতালি রাজকে। শেফালি আউট হন ৪২ রানে, মিতালি রানের খাতা না খুলেই। বিনা উইকেটে ৭৪ থেকে নিমিষেই ভারত পরিণত হয় ৩ উইকেটে ৭৪–এ।
২৩০ করতে পারবে বাংলাদেশ?
২৩০ করতে পারবে বাংলাদেশ?ছবি: এএফপি
বিজ্ঞাপন

বিপর্যয় সামাল দেন ইয়াস্তিকা ভাটিয়া। তিনি রিচা ঘোষ আর হারমানপ্রীত কাউরের সঙ্গে দুটি জুটি গড়েন। হারমানপ্রীতের সঙ্গে চতুর্থ উইকেট জুটিতে তিনি যোগ করেন ৬০ বলে ৩৪, রিচার সঙ্গে পঞ্চম উইকেটে ৬৯ বলে ৫৪। ইয়াস্তিকা ৮০ বলে ৫০ করে ঋতু মনির বলে নাহিদা আক্তারের ক্যাচ হন। নিজের ইনিংসটা আরও বড় করতে পারতেন তিনি। তবে ঋতুর বলে রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে আউট হন। হারমানপ্রীত আউট হন ১৪ আর রিচা ফেরেন ২৬ রানে।
ইয়াস্তিকা ভাটিয়া পেয়েছেন অর্ধশতক
ইয়াস্তিকা ভাটিয়া পেয়েছেন অর্ধশতকছবি: এএফপি

ইয়াস্তিকা যখন ফেরেন, তখন রানের জন্য মরিয়া ছিল ভারত। বাংলাদেশি বোলারদের সুন্দর লাইন–লেংথে করা বোলিং তাদের কিছুটা চাপে রেখেছিল। তবে পুজা বস্ত্রাকর আর স্নেহ রানা সেই চাপ থেকে ভারতকে বের করে আনেন। সপ্তম উইকেট জুটিতে এ দুজন ৩৮ বলে ৪৮ রানের এক জুটি গড়ে ভারতের সংগ্রহকে নিয়ে যান ২২৯–এ। পুজা ৩৩ বলে ৩০ করে অপরাজিত ছিলেন শেষ পর্যন্ত। স্নেহ ২৩ বলে ২৭ রান করে শেষ ওভারে জাহানারার বলে ফেরেন। ইনিংসের ৪৯তম ওভারে নাহিদার বলে এ দুজন তুলে নেন ১৩ রান।

বাংলাদেশের পক্ষে ৩৭ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন ঋতু। নাহিদা ২ উইকেট নিয়েছেন ৪২ রানের খরচায়। সালমা ৮ ওভার বোলিং করে ২৩ রান দিয়ে ছিলেন উইকেটশূন্য। রুমানা আহমেদও ভালো বোলিং করেছেন, কিন্তু উইকেট পাননি। ৮ ওভারে দিয়েছেন ৩৭। জাহানারা আলম ৮ ওভার বোলিং করে ৪৭ রান দিয়ে নিয়েছেন একটি উইকেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published.