না খেলেই নিউজিল্যান্ড থেকে দেশে ফিরতে পারেন বাংলাদেশের টাইগাররা

তিনটি করে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সিরিজ খেলার জন্য নিউজিল্যান্ডে অবস্থান করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি ব্ল্যাক ক্যাপসদের দেশের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয় তামিম-রিয়াদরা। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে গিয়ে পৌঁছার পর থেকেই কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে বাংলাদেশ দল। নিয়মানুযায়ী ১৪ দিনের কোয়রেন্টাইন পালন করতে হবে তাদেরকে।

তবে এরই মধ্যে বড় এক দুঃসংবাদ তৈরি হয়েছে বাংলাদেশের সিরিজ নিয়ে। কারণ, করোনা পরিস্থিতি নিউজিল্যান্ডে খুব একটা ভালো নয়। যে কারণে দেশটির অন্যতম বড় শহর অকল্যান্ডে করোনা পরিস্থিতি ভালো নয়। যে কারণে দেশটির সরকার অকল্যান্ডে লেভেল-৩ করোনা লকডাউন জারি করেছে। ক্রিকইনফো জানিয়েছে এ সংবাদ।

করোনা প্রতিরোধে নিউজিল্যান্ডের নেয়া কয়েকস্তরের প্রটোকলের মধ্যে লেভেল-৩ হচ্ছে সর্বোচ্চ। সেটাই প্রয়োগ করা হয়েছে অকল্যান্ডের ওপর। আগামী এক সপ্তাহ পুরোপুরি লকডাউনের আওতায় থাকবে অকল্যান্ড।মাউন্ট মঙ্গানুইতেও একই অবস্থা। যদিও অকল্যান্ডছাড়া বাকি শহরগুলোতে লেভেল-২ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

করোনার নতুন সংক্রমনের এই খবর খোদ জাতির সামনে প্রকাশ করেছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরদান। অকল্যান্ডে খেলা ছিল নিউজিল্যান্ডে সফররত ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দল এবং অস্ট্রেলিয়া পুরুষ দলের। লকডাউনের কারণে এরই মধ্যে এই দুটি ম্যাচ সরিয়ে আনা হয়েছে ওয়েলিংটনে।

শুধু তাই নয়, অস্ট্রেলিয়া পুরুষ দল এবং ইংল্যান্ড নারী দলের সঙ্গে সিরিজের বাকি সব ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে ক্লোজ ডোর তথা দর্শকছাড়া স্টেডিয়ামে। পরিবর্তিত ভেন্যু অনুযায়ী আগামী রোববার ডানেডিনে ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলের সঙ্গে নিউজিল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলের ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

এরপর মঙ্গলবার ওয়েলিংটনে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। সবগুলোই হবে দর্শকহীন স্টেডিয়ামে। এই অকল্যান্ডেই ১ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচের। তবে যেহেতু অকল্যান্ডের এই লকডাউন এক সপ্তাহের জন্য, সে কারণে আপাতত বাংলাদেশ সিরিজ নিয়ে নিউজিল্যান্ডে আলাপ নেই।

তবে, লকডাউন দীর্ঘায়িত হলে কিংবা অন্য শহরগুলোতে লেভেল-৩ এর লকডাউন ঘোষণা হলে সিরিজ কিছুটা হলে শঙ্কায় পড়বে বৈকি। ২০ মার্চ থেকে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে শুরু হওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশের ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। পরের দুই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ২৩ ও ২৬ মার্চ। ২৮, ৩০ মার্চ ও ১ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *