কৃষক লীগ নেতার ধর্ষণে মা হলো কিশোরী গৃহকর্মী

জামালপুরের বকশীগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরী গৃহকর্মীকে (১৫) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে দেলোয়ার হোসেন ওরফে দুলু (৬০) নামে এক কৃষক লীগ নেতার বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার ওই কিশোরী কন্যাসন্তানের জন্ম দেয়। এ অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে সাধুরপাড়া ইউনিয়নের আর্চচাকান্দি গ্রামের নিজ

বাড়ি থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। দুলু উপজেলার সাধুরপাড়া ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি। তার বিরুদ্ধে বকশীগঞ্জ থানায় মামলা হয়েছে। অভিযোগে জানা গেছে, দেলোয়ার হোসেন দুলু বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার বাড়ির গৃহকর্মী কিশোরীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। একপর্যায়ে ওই কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। মঙ্গলবার

বিকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বাথরুমে ওই কিশোরী এক কন্যাসন্তান প্রসব করে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। ওই কিশোরী জানায়, ছোটবেলায় তার বাবা মারা যান। অভাব অনটনের কারণে তাকে তার মা সাধুরপাড়া ইউনিয়নের আর্চচাকান্দি গ্রামের বাসিন্দা ও ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন ওরফে দুলুর

বাড়িতে গৃহপরিচারিকা হিসেবে কাজে দেন। এরপর অসহায় কিশোরীর ওপর লোলুপ দৃষ্টি পড়ে দেলোয়ারের। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে দেলোয়ার হোসেন দুলু। একপর্যায়ে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এরপর বাচ্চাটি নষ্ট করার জন্য তাকে চাপপ্রয়োগ করতে থাকে দেলোয়ার। কাউকে বললে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। লজ্জায় ও ভয়ে বিষয়টি কাউকে জানায়নি কিশোরী ও তার মা।

মঙ্গলবার বিকালে পেটে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে আসে ওই কিশোরী। ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ফেরার সময় হাসপাতালের বাথরুমে যায় সে। সেখানেই ফুটফটে এক কন্যাসন্তানের জন্ম দেয় সে।বকশীগঞ্জ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম সম্রাট জানান, এ ঘটনায় কিশোরীর মা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলার পরই অভিযুক্ত দেলোয়ার হোসেন ওরফে দুলুকে গ্রেফতার করা হয়। বুধবার দুপুরে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *