আফগানিস্তানের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা পতনের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে: জাতিসংঘ

আফগানিস্তানে অর্থনৈতিক ও ব্যাংকিং ব্যবস্থা পতনের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক। নিউ ইয়র্কের স্থানীয় সময় সোমবার (২২ নভেম্বর) তিনি এ মন্তব্য করেন। স্টিফেন ডুজারিক বলেন, জাতিসংঘের উন্নয়ন

কর্মসূচি ঘোষণা করেছে যে, আ’ফগানিস্তানের ক্রেডিট মার্কেটে অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ ২০২০ সালে যেখানে ছিল শতকরা ২০ ভাগ তা চলতি বছরে ৫৭ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে। জাতিসংঘের উন্নয়ন কার্যক্রম এক প্রতিবেদনে বলেছে, আফগানিস্তানের ব্যাংকগুলো

থেকে গ্রাহকরা তাদের পুঁজি তুলে ফেলছেন যা অব্যাহত থাকলে চলতি বছরের শেষ নাগাদ ব্যাংকে জনগণের গচ্ছিত অর্থ শতকরা ৪০ ভাগ কমে যাবে। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত আফগানিস্তানের জন্য সাহায্যের আবেদনে যে সাড়া পাওয়া গেছে তাতে ৬০ কোটি ৬০

লাখ ডলারের তহবিল সংগৃ’হিত হয়েছে এবং এই অর্থ দিয়ে আফগানিস্তানের এক কোটি ১০ লাখ মানুষকে সেবার আওতায় আনা সম্ভব হবে। আফগানিস্তানে আসন্ন শী”তকালকে সামনে রেখে দেশটির দারিদ্র ও বেকারত্ব ব্যা’পকভাবে বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শীতকালে দে’শটির কোনো কোনো এলাকার তাপমাত্র হিমাঙ্কের নীচে চলে যায় এবং এ সময় দিনমজুরদের জন্য তেমান কোনো কাজ থাকে না বললেই চলে। আন্তর্জাতিক সং’স্থাগুলো সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, এর ফলে আফগানিস্তানে মানবিক বিপর্যয় ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *