দুবাইয়ে নবীদের জীবনী নিয়ে ডিজিটাল প্রদর্শনীর আয়োজন

মহানবী সা:-এর আগে যেসব পয়গম্বর এসেছিলেন, তাঁরা এসেছিলেন বিশেষ বিশেষ গোত্র কিংবা অঞ্চলের জন্য। কিন্তু রাসূল সা: এসেছিলেন মহান প্রভু আল্লাহ তায়ালার প্রেরিত বার্তা পৃথিবীর সব মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে। নতুন খবর হচ্ছে, দুবাই এক্সপো ২০২০- এ মহানবী (সা.)-এর ‘জীবনী নিয়ে প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে মুসলিম ওয়ার্ল্ড লিগ

(এমডাব্লিওএল)। দুবাই প্যাভিলয়নে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি দিয়ে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। ‘দ্য প্রফেট এজ ইফ ইউ সি দিম’ বা ‌‘মহানবীকে যেন আপনি দেখছেন’ নামের এ প্রদর্শনীতে ভিড় করছেন দর্শনার্থীরা। মহনবী (সা.)-এর জীবনী ভিত্তিক

প্রদর্শনীতে তার শান্তি, প্রেম, স্নেহ, উদারতা, সহবস্থান ও মানবতাবোধ তুলে ধরা হয়। তাঁর স্নেহপূর্ণ দিকনির্দেশনায় বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছিল শান্তির আবহ। এছাড়াও মহানবীর নৈতিকতাবোধ ও ইসলামের বৈশ্বিক বার্তার সৌন্দর্য তুলে ধারা হয়। সবচেয়ে আকর্ষণীয়

বিষয় হলো, এ প্রদর্শনীতে পবিত্র কোরআনে বর্ণিত ২৫জন নবীর পরিচয় তুলে ধরা হয়। আরবি, ইংরেজি, ফ্রেঞ্চ, হিব্রু ও ইন্দোনেশিয়ান বিশ্বের পাঁচটি ভাষায় তাদের পরিচিতি বর্ণনা করা হয়। এখানে এসে দর্শকরা নানা বিষয়ে জানতে পারবেন। নবীদের উপাধি,

ডাকনাম, বৈশিষ্ট্য, নৈতিকতা, শৈশব, আত্মীয়-স্বজন, তাদের ওপর অবতীর্ণ গ্রন্থ, তাদের অলৌকিক কাজ ও তাদের ভাষায় কথা বলতেন এসব তথ্য তুলে ধরা হয়। ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বিভিন্ন ভাষার

দর্শকরা অন্য এক জগতের অভিজ্ঞতা লাভ করবেন। এলইডি স্ক্রিনের সাহায্যে তারা ব্যতিক্রমধর্মী এমন দৃশ্যে অবতরণের সুযোগ পাবেন, যেন মনে হবে তারাও নবীদের সঙ্গে অবস্থান করছেন। এছাড়াও এমডাব্লিওএল-এর প্যাভিলিয়নের দ্বিতীয় তলায়

অন্যান্য প্রদর্শনীর মধ্যে মক্কা ও মদিনার মডেলও আছে। এ প্রদর্শনীতে ‘ইসলাম শান্তির ধর্ম’ নামে একটি ক্যাম্পেইন শুরু হয়। এর মাধ্যমে নবীদের মানবিক আচরণ বিশেষত মহানবী মুহাম্মদ (সা.)-এর জীবনের সুন্দর আচার-ব্য’বহারের ওপর আলোকপাত

করা হয়। এছাড়াও ‘মা’নবতার প্রতি আপনার বার্তা’ নামে একটি ইন্টারেক্টিভ এলইডি ওয়ালের আয়োজন করা হয়। যেন এর মাধ্যমে জা’তিগত বিভেদ ও

নেতিবাচক সাংস্কৃতিক দ্ব’ন্দ্ব দূর করা যায়। স্বাধীনভাবে ও মর্যাদার সঙ্গে মানুষের বেঁচে থাকার অধিকারকে ধারণ করে সহাবস্থানের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। সূত্র : আরব নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *