ছাত্রীকে ধর্ষণ মাদ্রাসার অধ্যক্ষ গ্রেপ্তার

গাজীপুরে কিশোরী ছাত্রীকে (১৩) ধর্ষণ ও ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করার অভিযোগে এক হাফেজিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধারণকৃত ভিডিও ইন্টারনেটসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ও মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে শিক্ষার্থীটিকে গত এক বছর ধরে ধর্ষণ করে আসছিলেন অভিযুক্ত শিক্ষক।ধর্ষণের শিকার ওই

কিশোরী একই মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। আজ বুধবার জিএমপির কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবে খোদা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।গ্রেপ্তারকৃতের নাম হাদিউজ্জামান (৩৮)। তিনি যশোরের কেশবপুর উপজেলার মির্জাপুর সর্দারপাড়া এলাকার বাসিন্দা এবং গাজীপুরের কাশিমপুর এলাকার একটি হাফেজিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ

(প্রিন্সিপাল)পুলিশের ওই কর্মকর্তা মামলার বরাত দিয়ে জানান, ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ হাদিউজ্জামান প্রায় বছর খানেক আগে ওই শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করেন। ধর্ষণের দৃশ্য কৌশলে ভিডিও করেন তিনি। এরপর ওই ভিডিও ইন্টারনেটসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ও মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে তাকে গত এক বছর ধরে ধর্ষণ

করে আসছিলেন ওই শিক্ষক। মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীটি মাদ্রাসায় যেতে অনীহা প্রকাশ করে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে তার পরিবারকে ঘটনাটি জানায়। ঘটনাটি জানতে পেরে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে হাদিউজ্জামানের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন এবং পর্ণোগ্রাফি আইনে থানায় মামলা

করেন। পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষককে রাতেই গ্রেপ্তার করে। এ সময় তার কাছ থেকে ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর নগ্ন ভিডিওসহ তার একটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত মাদ্রাসা শিক্ষক হাদিউজ্জামানের দুই স্ত্রী ও সন্তান রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *