তুরস্কের ‘ড্রোন’ এবার হাঙ্গেরিতেও উড়বে

সিরিয়া, লিবিয়া ও নাগোরনো-কারাবাখ যু’দ্ধে’র মোড় ঘুরানোর কৃতিত্ব দেওয়া হয় তুর’স্কের ড্রোনকে। এর পর থেকে মূলত তুর্কি ড্রো’নের চাহিদা বাড়তে থাকে বিশ্বজুড়ে। তুরস্কের গণমাধ্যম হুররিয়াত ডেইলি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্প্রতি তুরস্কের ড্রোন হাঙ্গেরির সেনাবাহিনী পরী’ক্ষামূলক উড্ডয়ন করেছে।

হাঙ্গেরির স্থানীয় গণমাধ্যম মাগইয়ার নে’মজেতের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, হাঙ্গেরির সেনাবাহিনী তুরস্কের ‘ড্রো”ন পরীক্ষা করে দেখেছে। পাপা বিমানঘাঁটিতে কারায়েল-এসইউ ড্রোন পরীক্ষা করে দেখা হয়। কারায়েল-এসইউ ড্রোন তৈরি করেছে তুরস্কের ভেসটেল

কোম্পানি। হাঙ্গে’রির প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা গ্যাসপার ম্যারথ বলেন, হাঙ্গেরি ২০১৮ সাল থেকে ড্রো’ন নিয়ে একটি পরিকল্পনা তৈরি করেছে। এর পর থেকে তুর্কি বিভিন্ন কোম্পানির ড্রো’ন সংগ্রহ করার জন্য পর্যালোচনা করে দেখা হচ্ছে। মাগইয়ার নেমজেতের প্রতিবেদনে আরও

বলা হয়, হাঙ্গেরির সেনাবাহিনী কারায়েল-এসইউ ড্রোন পছন্দ করে থাকতে পারে। এর কারণ হলো- ড্রো’নটির সম্পূর্ণ স্বায়’ত্তশাসিত উ’ড্ডয়ন, অবতরণ ও ফ্লাইট ফিচারস। তুরস্কের আনম্যানড এরিয়াল ভেহিকেল, ইউএভি, বা সশ’স্ত্র ম’নুষ্যবিহীন ড্রো’ন এবার পরীক্ষা

চালিয়েছে হা’ঙ্গেরির সেনা’বাহিনী। শুক্রবার স্থানীয় পত্রিকা ম্যাগয়ার নেমজেট এ তথ্য জানিয়েছে। এর আগে তুরস্কের ড্রোন আমদানির খবর দিয়েছিল হাঙ্গেরি। তখন বলা হয়, মরক্কো ও ই’থিওপিয়ায় ব্যাপক হারে ড্রোন রপ্তানি করেছে তুরস্ক। টার্কিশ এক্সপোর্টার্স অ্যাসেম্বলি

জানাচ্ছে, ইথিওপিয়ায় প্র’তিরক্ষা এবং বিমান রপ্তানি চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে ৫১ মিলিয়ন ডলারে উন্নীত হয়। গত বছরের একই সময়ে এর পরিমাণ ছিল ২ লাখ ৩ হাজার ডলা’র। আগস্ট এবং সেপ্টেম্বরে

লাফিয়ে বেড়েছে ড্রোন রপ্তানি। গত বছরের ৪ লাখ ২ হাজার ডলারের বিপরীতে মরক্কোতে চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে রপ্তানি হয় ৭৮.৬ মিলিয়ন ডলার ‘মূল্যের ড্রোন। এর মধ্যে শুধু সেপ্টেম্বরেই ড্রোন রপ্তানি বাবদ তুরস্কের আয় হয় ৬২ মিলিয়ন ডলার। সূত্র : হুররিয়াত ডেইলি নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *