ওজু করতে গিয়ে মোবাইল পানিতে পড়লে সার্ভিসিং ফ্রি

নামাজ পড়ার জন্য ওজু করতে গিয়ে পকেট বা হাত থেকে মোবাইল ফোন পানিতে পড়ে গিয়ে নষ্ট হলে সার্ভিসিং ফ্রি এমনি এক সাইনবোর্ড ঝুলানো হয়েছে দোকানের সামনে। যা পথচারীসহ সব মানুষকে আকৃষ্ট করেছে। টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী বাজারের আব্দুর রহমান টেলিকম অ্যান্ড মোবাইল সার্ভিসিং সেন্টার এ ঘোষণা দিয়েছে।

মোবাইল মেকানিক সোহেল রহমান জানান, আল্লাহ তায়ালা আমাকে একটা পুত্র সন্তান দান করেছেন। আমার একান্ত ইচ্ছা তাকে ধর্মীয় শিক্ষায় শিক্ষিত করা। তাই আগে থেকেই যারা নামাজী তাদেরকে সেবা করছি এবং জনকল্যাণমূলক কাজ করার চেষ্টা করছি। সেই স্বপ্ন প্রতিফলনের মাধ্যম হিসেবে এমনই উদ্যোগ নিয়েছি। আমার এমন উদ্যোগে আমি মানুষের কাছ থেকে বেশ উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা পাচ্ছি।

তিনি বলেন, প্রতিদিন এমনিতেই কাজ ভালো থাকে, তবে ওজু করতে গিয়ে নষ্ট হওয়া মোবাইল বিনা পয়সায় মেরামত করার পর থেকে কাজকর্ম অনেক বেড়ে গেছে। আর আমার কাজটা হবে নামাজ পড়তে যাওয়া মানুষদের জন্য। বিনা পয়সায় কাজটা করে দিলে তারা তো আমার জন্য মন খুলে দোয়াও করতে পারে।

মোবাইল ফোন পানিতে পড়ে যাওয়া মো. হাসমত আলী নামে এক মুসল্লি বলেন, কয়েক দিন আগে আসরের নামাজের সময় ওজু করতে গিয়ে আমার মোবাইলটা পকেট থেকে পানিতে পড়ে যায়। টাকার অভাবে মেরামত করতে পারছিলাম না।

হঠাৎ এক লোক বললেন, গোবিন্দাসী বাজারের আব্দুর রহমান টেলিকম অ্যান্ড মোবাইল সার্ভিসিং সেন্টারের পরিচালক সোহেল রহমান নামাজ পড়া মুসল্লিদের ওজু করতে গিয়ে মোবাইল নষ্ট হলে সেই মোবাইল কোনো টাকা ছাড়াই মেরামত করে দেন। প্রথমে আমার বিশ্বাস হচ্ছিল না। পরে আমার মোবাইল কোনো টাকা ছাড়াই মেরামত করে দেওয়ার পর আমার বিশ্বাস হয়েছে। আমি নামাজ পড়ে দোয়া করব যেন আল্লাহ তায়ালা সোহেল ভাইয়ের মঙ্গল কামনা করেন।

গোবিন্দাসী বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মো. ছরোয়ার হোসেন আকন্দ বলেন, সোহেল রহমান মুসল্লিদের জন্য যে উদ্যোগ নিয়েছে তা নিঃসন্দেহে মহৎ উদ্যোগ। আমি এই প্রথম শুনলাম নামাজ পড়ার জন্য অজু করতে গিয়ে মোবাইল ফোন পানিতে পড়ে গিয়ে নষ্ট হলে কোনো প্রকার টাকা ছাড়াই মোবাইল সার্ভিসিং করে দেয়। এমন একটি মহৎ উদ্যোগের জন্য বাজার সমিতির পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই এবং তার সাফল্য কামনা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *