নরসিংদীতে ‘বাবার লাশ’ বাড়িতে রেখে পরীক্ষার হলে সিনথিয়া

মেয়ের এসএসসি পরীক্ষার সকালে হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যুবরণ করেছেন বাবা হু’মায়ূন কবির (৪৮)। পরীক্ষার্থী সিনথিয়া কবির হারিয়েছেন বাবাকে, যার পায়ে হাত ছুঁয়ে দোয়া নিয়ে যেতেন পরীক্ষার কেন্দ্রে। অবশেষে চোখে অশ্রু নিয়েই পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছেন মেয়ে।

আজ রোববার (১৪ নভেম্বর) সকালে নরসিংদীর পলাশ উপজেলায় এই হৃ’দয়বিদারক ঘটনা ঘটে। সিনথিয়া কবির উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার জনতা আদর্শ বি’দ্যাপীঠের ছাত্রী। ফজরের নামাজের পর সিনথিয়া কবিরের বাবা হুমায়ুন কবির মৃ’ত্যুবরণ করেন। হুমায়ুন কবির উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার

পলাশ কুটিরপাড়া গ্রামের মৃত মোখলেছ সরদারের ছেলে। নিহতের স্বজনরা জানান, হুমায়ুন কবির হার্ট অ্যাটাক করে ভোরে নিজ বাড়িতে ‘মৃ’ত্যুবরণ করেন। সদ্য পিতৃহারা সিনথিয়া ক’বির সহপাঠী ও কেন্দ্র সচিবের সহযোগিতায় ঘোড়াশাল ডাঃ নজরুল বিন নূর মহসিন বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজে এসএসসি পরীক্ষার প্রথম

দিনে পদা’র্থবিজ্ঞান পরী’ক্ষায় অংশ নেন। সিনথিয়া কবিরের বাবার মৃ’ত্যুর খবরে পরীক্ষা কেন্দ্রে এক শোকের ছায়া নেমে আসে। এক হাতে চোখ মুছে ও অন্য হাতে খাতায় লিখতে দেখা গেছে সি’নথিয়া কবিরকে। পরীক্ষা

কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব রিনা নাসরিন জানান, পরীক্ষার্থী সিনথিয়া কবিরের বাবার মৃত্যুর বিষয়টি আমরা অবগত হয়েছি। তার জন্য কোনো বিশেষ ব্যবস্থায় পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে না। সে সবার সাথে স্বাভাবিকভাবেই পরীক্ষা দিয়েছে।ছবি ও সূত্র : যমুনাটিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *