শাড়ি কিনে না দেওয়ায় স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে তরুণী আত্মহত্যা

ঠাকুরগাঁওয়ে শাড়ি কিনে না দেওয়ায় স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে দিথি রাণী নামে ১৮ বছরের এক তরুণী আত্মহত্যা করেছেন। তবে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি স্বজনদের।

সোমবার রাতে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান। দিথি রাণী ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আউলিয়াপুর ইউনিয়নে নাপিতপাড়া গ্রামের ভমর রায়ের স্ত্রী।

জানা গেছে, দুই মাস আগে বড় বোনের দেবর রাজমিস্ত্রি ভমর রায়ের সঙ্গে ভালোবেসে বিয়ে হয় দিথি রাণীর। রোববার ভূল্লী বাজারে স্বামীর সঙ্গে কেনাকাটা করতে যান তিনি। এ সময় দামি শাড়ি কিনতে চান দিথি। কিন্তু স্বামী শাড়ি কিনে না দেওয়ায় বাসায় গিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়।

ADVERTISEMENT

বাসার সবাই ঘুমিয়ে পড়লে মধ্যরাতে দিথি শোয়ার ঘরে ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দেন। পরে তাকে ঝুলতে দেখে উদ্ধার করেন স্বামী ভমর রায়। এরপর ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে নিলে রংপুরে পাঠান চিকিৎসকরা। সেখানে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

দিথির বাবা-মায়ের দাবি, তাদের মেয়েকে মেরে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. রাকিবুল ইসলাম চয়ন বলেন, আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই গৃহবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। ঘণ্টাখানেক পর অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভীরুল ইসলাম বলেন, গৃহবধূর মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনের পর আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *