মুসলিম ‘হত্যা ও চরমপন্থার’ অভিযোগে জাতিসংঘে ভারতকে চরম ‘তিরস্কার পাকিস্তানের

মুসলিম হ’ত্যা ও চর’মপন্থার ‘প্র’তিবাদে গতকাল শুক্রবার জাতিসংঘে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বক্তব্য রাখেন। তিনি মুসলমানদের উপর ভারত “সন্ত্রাসের রাজত্ব” প্রতিষ্ঠা করেছে অভিযোগ করে,

দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মো’দিকে এজন্য ক:ঠোরভাবে তি’রস্কার করেন।–এএফপি, আল আরাবিয়াহ বিশ্ব সংস্থা জাতিসংঘে নিয়মিতভাবে ভারতকে পাকিস্তান তিরস্কার করে,এমনকি জা’তিসংঘের বার্ষিক শীর্ষ

সম্মেলনে ইমরান খানের ভাষণটি ছিল উল্লেখযোগ্য। কারণ, তিনি “ভারতকে মুসলমানদের থেকে মুক্ত করার” পরিকল্পনার জন্য দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে সুনির্দিষ্টভাবে অ’ভিযুক্ত করেন। ইমরান খান

কোভিড সতর্কতার কারণে ভিডিওর মাধ্যমে দেওয়া এক ভাষণে বলেন, ইস’লামোফোবিয়ার সবচেয়ে খারাপ এবং সর্বাধিক বিস্তৃত রূপ এখন ভারতকে শাসন করছে।
তিনি বলেন, ফ্যাসিস্ট আরএসএস-বিজেপি শাসন

দ্বারা প্রচারিত বিদ্বে’ষপূর্ণ হি’ন্দুত্ববাদী আ’দর্শ ভারতের ২০০ মিলিয়ন শক্তিশালী মুসলিম জনসংখ্যার বিরুদ্ধে ভয় ও সহিংসতার রাজত্ব কায়েম করেছে। ইমরান খান তার বক্তৃতায় মোদীর ভারতীয় জনতা পার্টি এবং সংযুক্ত রাষ্ট্রীয় স্ব’য়ংসেবক সং’ঘের কথা উল্লেখ করে বলেন,

এটি আধা সা’মরিক বা’হিনী, যা শতাব্দীর প্রাচীন হিন্দু পুনরুজ্জীবনবাদী একটি মুসলিমবিদ্বেষী সংগঠন। তিনি বলেন, মোদীর অ’ধীনে ভারত কাশ্মীরের স্বায়ত্বশাসন প্রত্যাহার ক’রেছে। কারণ, এটি দেশটির একমাত্র

মুসলিম সং’খ্যাগরিষ্ঠ অঞ্চল। নাগরিকত্ব আইনের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রদেশে নির্বিচারে পুশ ব্যাক করা হচ্ছে, যাকে সমালোচকরা বৈষম্যমূলক এবং ধর্মভিত্তিক সহিংসতার পুনরাবৃত্তি বলে দেখছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *