নিউজিল্যান্ড দলকে ‘হুমকি’ দিতে ব্যবহৃত ডিভাইসটি ভারতের

পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী গতকাল বলেছেন, নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলকে হু’মকি পাঠানোর জন্য ব্যবহৃত ডিভাইসটি ভারতের। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদের সঙ্গে ইসলামাবাদে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী বলেন, পুরো পরিস্থিতি শুরু হয়েছে যে কোন একজন তেহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তান (টিটিপি) জ’ঙ্গি এহসানউল্লাহ এহসান বলে দাবি করে একটি ভু”য়া পোস্টের কারণে। ফাওয়াদ বলেন যে, আগস্ট মাসে এহসানের নামে একটি ভু:য়া পোস্ট তৈরি করা হয়েছিল যা নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড এবং সরকারকে বলেছিল যে, দলটি পাকিস্তানে পাঠানো থেকে বিরত থাকুন কারণ এটি ‘লক্ষ্যবস্তু’ হবে। তিনি বলেন,

এ পোস্টের পরে, দ্য সানডে গার্ডিয়ানের ব্যুরো প্রধান, অভিনন্দন মিশ্র, একটি নিবন্ধ প্রকাশ করে দাবি করেছেন যে, এহসানের ভুয়া পোস্টের উদ্ধৃতি দিয়ে দলটি পাকিস্তানে স’ন্ত্রা’সের হু’মকির সম্মুখীন হতে পারে। তার ওয়েবসাইট অনুসারে, দ্য সানডে গার্ডিয়ান প্রতিষ্ঠা করেছিলেন রাজনীতিবিদ এম জে আকবর, যিনি ২০১৮ সাল পর্যন্ত মোদি নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারে পররাষ্ট্র মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বলেন, ‘মজার বিষয় হল, [মিশ্রের] [আফগানিস্তানের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট] আমরুল্লাহ সালেহর সাথে শক্তিশালী সম্পর্ক রয়েছে’। তিনি বলেন যে, ২৪ আগস্ট নিউজিল্যান্ডের ওপেনার মার্টিন গাপটিলের স্ত্রী তার স্বামীকে আইডি থেকে ‘তেহরিক-ই-লাব্বাইক’ নাম দিয়ে হুমকি দেওয়ার একটি ইমেল পেয়েছিলেন। তিনি বলেন,

‘যখন আমরা আরো তদন্ত করেছি, আমরা কিছু তথ্য আবিষ্কার করেছি। প্রথমত, এ ইমেইলটি কোন সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্কের সাথে যুক্ত নয় এবং এ অ্যাকাউন্ট থেকে শুধুমাত্র একটি ইমে’ইল তৈরি করা হয়েছে’। মন্ত্রী যোগ করেন যে, ইমেলটি একটি সুরক্ষিত পরিষেবা প্রোটনমেইলের মাধ্যমে পাঠানো হয়েছিল। ‘[ইমেইলের] বিবরণ পাওয়া যায় না এবং আমরা ইন্টারপোলকে অনুরোধ করেছি আমাদের সাহায্য করার জন্য এবং কীভাবে এটি তৈরি করা হয়েছে তা আমাদের জানান’। এ ঘটনা সত্ত্বেও, নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল এ সময়ে সফর বাতিল করেনি এবং ‘পাকিস্তান ভ্রমণ করে। ‘যেমন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন, আমরা যে নিরাপত্তা দিয়েছি

তা তাদের বাহিনীর লোকের সংখ্যার চেয়ে বেশি’, তিনি বলেন। ফাওয়াদ বলেন যে, একবার ব্ল্যাক ক্যাপ আসার পর, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাদের জন্য একটি বিস্তারিত প্রটোকল প্রোগ্রাম জারি করে এবং দলগুলো অনুশীলন সেশনে মনোনিবেশ করতে শুরু করে। তিনি বলেন, নিউজিল্যান্ড দল ‘কোন সমস্যা ছাড়াই’ অনুশীলন সেশনে অং’শগ্রহণ করেছিল। তবে, প্রথম ম্যাচের দিন নিউজিল্যান্ডের কর্মকর্তারা বলেন যে, তাদের সরকারের বিশ্বাসযোগ্য হুমকির বিষয়ে উদ্বেগ রয়েছে এবং সফর বাতিল করেছে। ‘পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তারা, স্বরাষ্ট্র মন্ত্র’ণালয়ের নিরাপত্তা দল, সবাই তাদের কাছে গিয়ে তাদের হুমকি শেয়ার করে নিতে বলেছিল [কিন্তু] তারা আমাদের মতই অজ্ঞ ছিল’। তিনি বলেন যে, একদিন পর হামজা আফ্রিদির আইডি ব্যবহার করে নিউজিল্যান্ড দলকে দ্বিতীয় হুমকি ইমেল পাঠানো হয়েছিল। তিনি বলেন যে, যখন কর্তৃপক্ষ

ইমেলটি অ”নুসন্ধান করে, তারা আবিষ্কার করেছিল যে, এটি ভারতের সাথে সম্পর্কিত একটি ডিভাইস থেকে পাঠানো হয়েছিল। ‘এটি একটি ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন) ব্যবহার করে পাঠানো হয়েছিল যাতে অবস্থানটি সিঙ্গাপুর হিসাবে দেখানো হয়’। তিনি বলেন যে, একই ডিভাইসে আরো ১৩টি আইডি ছিল, যার প্রায় সবই ভারতীয় নাম। ‘সব আইডি ভারতীয় অভিনেতা এবং সেলিব্রিটিদের নাম ব্যবহার করে তৈরি করা হয়েছিল। এ ইমেলটি পা’কিস্তান থেকে তৈরি করা হয়েছে তা দেখানোর জন্য শুধুমাত্র হামজা আফ্রিদির নাম আলাদা। ‘পাকিস্তানে সন্ত্রাসবাদী হুমকি আছে তা দেখানোর জন্য ইচ্ছাকৃতভাবে তার নাম ব্যবহার করা হয়েছিল’। তিনি বলেন, বিশেষ যন্ত্রের ব্যবহারকারীকে মহারাষ্ট্রের ওমপ্রকাশ মিশ্র বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। ‘নিউজিল্যান্ড দলকে হুমকি পাঠানোর জন্য ব্যবহৃত ডিভাইসটি ভারতের। একটি জাল আইডি ব্যবহার করা হয়েছিল কিন্তু এটি মহারাষ্ট্র থেকে পাঠানো হয়েছিল’।

মন্ত্রী আরো বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় একটি মামলা নথিভুক্ত করেছে এবং তেহরিক-ই-লাব্বাইক প্রোটনমেইল এবং হামজা আফ্রিদির আইডির বিষয়ে সহায়তা ও তথ্যের জন্য ইন্টারপোলকে অনুরোধ করেছে। ‘এই পুরো হুমকি মূলত ভারত থেকে তৈরি হয়েছিল’। তিনি বলেন যে, ডিসেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল পাকিস্তান সফরে ছিল। ‘ইতোমধ্যে দলকে একটি হু’মকি দেওয়া হয়েছে’, তিনি বলেন, এটি একটি প্রোট’নমেইল অ্যাকাউন্টের মাধ্যমেও জারি করা হয়েছিল। তিনি বলেন, ‘এটা দু’র্ভাগ্যজনক। আমরা বিশ্বাস করি এটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বি’রুদ্ধে একটি অভিযান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) এবং অন্যান্য সংস্থাগুলোকে অবশ্যই নজর দিতে হবে’। তিনি নিউজিল্যান্ড সরকারকে তাদের হুমকির সুনির্দিষ্ট তথ্য শেয়ার করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন যে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি – যিনি বর্তমানে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কে রয়েছেন – তিনি নিউজিল্যান্ডের সাথেও তীব্র প্রতিবাদ করেছিলেন। ‘আমরা আশা করি তারা তাদের অবস্থান শেয়ার করবে’।

কিউইদের পদাঙ্ক অনুসরণ করার ইংল্যান্ডের সিদ্ধান্তের বিষয়ে মন্তব্য করে ফাওয়াদ বলেন, ব্রিটিশ হাইকমিশনার ক্রিশ্চিয়ান টার্নার স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন যে, পাকিস্তানের জন্য যুক্তরাজ্য সরকারের পরামর্শ পরিবর্তন করা হচ্ছে না। ‘তাহলে যদি সরকারের কোন রিজার্ভেশন না থাকে, তাহলে ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ড কে [সফর বাতিল করার]? তিনি আরো বলেন, যে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে তা মূল্যায়ন করতে তিনি পাকিস্তান টেলিভিশনকে বলেছিলেন। তিনি বলেন, ‘আমরা এটি নিয়ে কাজ করছি এবং আমাদের আইনি দল অনুমতি দিলে আমরা ইসিবি-র বিরুদ্ধে মামলা করব’। ‘যুক্তিহীন’ : এদিকে, স্বরা’ষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ বলেছেন, যদি কেউ মনে করে যে, পাকিস্তান নিউজিল্যান্ডের সফর বাতিল থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে, ‘তারা যুক্তিহীন’।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বিচ্ছিন্ন হতে পারি না এবং নিউজিল্যান্ডের দিন [সফর বাতিল], আমি বলেছিলাম যে ইংল্যান্ডের দলও আসবে না’। রশিদ বলেন, ‘ক্রিকেট আমাদের আবেগ, কিন্তু হতাশা অবিশ্বাসের সমতুল্য। এমন একটি দিন আসবে যখন বিশ্বের দলগুলো পাকিস্তানে আসবে’। তিনি বলেন যে, পুরো পরিস্থিতি ‘উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে’ এবং এর আগে তথ্যমন্ত্রীকে বলেছিলেন যে, বিষয়টি এখন বন্ধ করা উচিত, তিনি আরো বলেন যে, ‘আমাদের আরও বড় সমস্যা রয়েছে [ফোকাস করার জন্য]’। রশিদ দাবি করেন, ‘ভারত অনেক লোককে জামিনে কারাগার থেকে মুক্তি দেয় এবং তারপর তাদের প্রশিক্ষণ দেয়। এটি পাকিস্তানে সন্ত্রাসবাদের [প্রচার] থেকে বিরত নয়’। পাকিস্তানের আত্মত্যাগের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশটি এর আগেও সন্ত্রাসবাদকে ব্যর্থ করেছে। ‘শান্তি আমাদের অবস্থান এবং এটি দেশে প্রতিষ্ঠিত হবে’। তিনি বলেন, পাকিস্তান একটি ‘ঐতিহাসিক ভূমিকা’ পালন করেছে এবং আফগা’নিস্তান থেকে ন্যাটো বাহিনী,

আইএমএফ এবং বিশ্বব্যাংকের কর্মী এবং আমেরিকানসহ ১০ হাজারেরও বেশি মানুষকে সরিয়ে নিয়েছে। ‘ভারত হতাশ হয়েছে যে, পাকিস্তানকে কোরবানীর পশু বানানো যাবে না এবং তিনি ভাবছেন যে, [আফগানিস্তানে] গৃহযুদ্ধ হবে এবং এত বেশি হত্যা ও হত্যা যে, এখানে শরণার্থীদের ভিড় হবে, কিন্তু একটিও শরণার্থী আসেনি’। তিনি বলেন, তোরখাম ও চমন সীমান্ত স্বাভাবিকভাবে কাজ করছে এবং এখানে আসা লোকদের তুলনায় পাকিস্তান থেকে আফগানিস্তানে বেশি লোক যাচ্ছে। ‘সবকিছুই শান্তি’পূর্ণ। এটি সবই একটি নাটক এবং এই নাটকের পিছনের গ্লাভড হাত ব্যর্থ হবে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জোর দিয়ে বলেন, ‘পাকিস্তান একটি মহান জাতি এবং তার রয়েছে দুর্দান্ত নিরাপত্তা সংস্থা এবং সেনাবাহিনী। এখানে একটি নির্বাচিত সরকার আছে এবং কেউ আমাদের আলাদা করতে পারবে না। আমরা এগিয়ে যাব’। সূত্র : ডন অনলাইন।

‘একেবারেই না’ বলায় পাকিস্তানকে মূল্য দিতে হচ্ছে : যুক্তরাষ্ট্র প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী গত মঙ্গলবার বলেছেন, পাকিস্তানের বিপক্ষে ক্রিকেট সিরিজ থেকে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড দল প্রত্যাহারের ফলে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ‘একেবারেই না’ বলেছিলেন। জুলাই মাসে প্রধানমন্ত্রী স্পষ্টভাবে বলেছিলেন যে, তিনি যুক্তরাষ্ট্রকে পাকি’স্তানকে তার আফগান অভিযানের ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহার করতে দেবেন না এবং এ বিবৃতি মূলধারার এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ আলোড়ন এবং বিতর্ক সৃষ্টি করে।

প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে তথ্যমন্ত্রী বলেন, পাকিস্তান যুক্তরাষ্ট্রকে ‘একেবারেই না’ বলার মূল্য দিচ্ছে। ‘জাতিরা তাদের মাথা উঁচু করে রাখতে চাইলে এ ধরনের মূল্য দিতে হয়; এটি এত ছোট মূল্য দিতে হয়; জাতিগুলো এ ধরনের মূল্য দিতে থাকে’, -তিনি যোগ করেন। ‘যদি আপনি ‘একেবারে না’ বলেন, তবে এর মূল্য আপনাকে দিতে হবে’, ইং”ল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ডের পেছন থেকে প্রত্যাহারের বিষয়ে মন্ত্রিসভার আলোচনার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন। ‘আমি মনে করি পাকিস্তান জাতি মূল্য দিতে এবং এই ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত’। সরকারের মুখপাত্র বলেন যে, তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে শিগগিরই প্রকৃতপক্ষে কী ঘটছে সে সম্প”র্কে বিশদ বিবরণ শেয়ার করবেন

এবং মানুষ দেখবে যে কীভাবে হাইব্রিড যুদ্ধ এবং ভুয়া খবর পরস্পর সংযুক্ত করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন যে, জনগণও দেখবে কীভাবে জাল ইমেল এবং ভুয়া হুমকি তৈরি হয়েছে এবং এ ধরনের অনুশীলনের ফলাফল কত বড়। চার্ট এবং লিঙ্কসহ এসব বিবরণ শিগগিরই লোকদের সাথে শেয়ার করা হবে। ফাওয়াদ বলেন, ক্রিকেট দলগুলো প্রত্যাহারের ফলে শুধুমাত্র পাকিস্তান টেলিভিশনের প্রায় ২০০ থেকে ২৫০ মিলিয়ন রুপি ক্ষতি হয়েছে। ফাওয়াদ বলেন, ‘আমরা আমাদের আইনজীবীদের স’ঙ্গে আলোচনা শুরু করেছি যাতে আমরা তাদের আদালতে নিয়ে যেতে পারি’। ‘এটি একটি অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক বিষয়’।

নিরাপত্তা উদ্বেগের মধ্যে নিউজিল্যান্ড তাদের দেশ সফর পরিত্যাগ করার তিন দিন পর, ইংল্যান্ড সোমবার আগামী মাসের পাকিস্তান সফর থেকে পুরুষ ও মহিলা উভয় দলই প্রত্যাহার করে নেয়। এদিকে, তথ্যমন্ত্রী বলেন, মন্ত্রিসভা সি’দ্ধান্ত নিয়েছে যে, আগামী সাধারণ নির্বাচন ৭ম ঐক্যমত্য এবং নতুন সীমাবদ্ধতার ভিত্তিতে অনুষ্ঠিত হবে। তিনি আরো বলেন, প্রযুক্তির সাহায্যে প্রক্রিয়াটি ১৮ মাস বা ৫৪০ দিন আগে পরবর্তী নির্বাচন সম্পন্ন করা হবে। তিনি বলেন, পদ্ধতিটি চূড়ান্ত করতে প্রধানমন্ত্রী ইস্যুতে একটি বিশেষ কমিটি গঠন করেছেন। টিকটক প্রশ্নে তথ্যমন্ত্রী বলেন, পাকিস্তান টেলিকমিউনিকেশন অথরিটি (পিটিএ) একটি নীতি নির্দেশিকা প্রস্তুত করেছে যা ইসলামাবাদ হাইকোর্টে পেশ করা হবে। তিনি আরো যোগ করেন যে,

ফেডারেল সর”কারের সোশ্যাল মিডিয়া থেকে আপত্তিকর বিষয়বস্তু অপসারণের অধিকার রয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়া সম্পর্কিত আইন সম্পর্কে ফাওয়াদ বলেন যে, সরকারের কাছে এমন সব কোম্পানি ধরার কৌশল রয়েছে যারা অশ্লী’ল সামগ্রী ব্লক করতে বিলম্ব করে এবং পাকিস্তানে আ’পত্তিকর ভিডিও তৈরিকারী ব্যক্তিদের বি’রুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আইন সংশোধন করে। তিনি বলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি নতুন নীতি বিতর্ক শুরু হচ্ছে এবং মানবাধিকার মন্ত্রী শিরীন মাজারী এর নেতৃত্ব দেবেন। সূত্র : এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *