নিরাপত্তারক্ষীর হাতে মার খেলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী, ক্ষুব্ধ মোদী!

হাসপাতালে নিরাপত্তারক্ষীর হাতে নিগৃহীত হয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মাণ্ডব্য়। সম্প্রতি মন্ত্রী নিজেই এমন বিস্ফোরক অভিযোগটি করেছেন। জানালেন, রাজধানী নয়াদিল্লির সফদরজং হাসপাতালে ঝটিকা সফরের সময়ই অভিজ্ঞতাটি হয়েছিল তার।

ঠিক কী হয়েছিল সেদিন?

গেল বৃহস্পতিবার ওই হাসপাতালে চারটি নতুন স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্বোধন করতে গিয়েছিলেন মনসুখ। সে সময় হাসপাতালের ভিতরে পরিদর্শনে যান তিনি। ওই নিরাপত্তারক্ষী তাকে চিনতে পারেননি। সে মনসুখকে সাধারণ রোগী হিসেবে ভেবে তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন।

মনসুখ মাণ্ডব্য়ের ‘অপরাধ’ ছিল- তিনি একটি বেঞ্চে বসতে যাচ্ছিলেন। তখনই মনসুখের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে ওই নিরাপত্তারক্ষী। এমনকি সে সময় তাকে আঘাতও করা হয়। এ ঘটনায় তিনি প্রচণ্ড অসন্তুষ্ট হয়েছেন বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এছাড়া হাসপাতালের পরিবেশ দেখেও তিনি ভীষণই রুষ্ট।

‘কোয়ালিটি কি বাত’ নামে একটি বুকলেট ও নতুন বিভাগগুলোর উদ্বোধনের সময় মঞ্চেই সকলের সামনে তিনি নিজের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন। একই সঙ্গে তিনি অভিযোগ করে বলেন, গোটা হাসপাতালে প্রায় হাজার দেড়েক নিরাপত্তারক্ষী থাকা সত্ত্বেও একজনকেও আমি বয়স্ক মহিলাদের সাহায্যে এগিয়ে আসতে দেখিনি।

যদিও হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের ব্যবহারে তিনি যে সন্তুষ্ট, তাও জানিয়েছেন ভারতীয় এই স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তার মতে, হাসপাতালের সাধারণ কর্মী ও স্বাস্থ্যকর্মীরা হলেন একই মুদ্রার দুটি পিঠ। তাদের একটি টিম হিসেবে কাজ করা উচিৎ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও ঘটনাটির কথা জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীও এই অভিজ্ঞতার কথা শুনে মানসিকভাবে আহত হয়েছেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই নিরাপত্তারক্ষীকে বরখাস্ত করা হয়নি বলেই দাবি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর।মনসুখ বলেন, কোনো ব্যক্তিবিশেষ নয়, সামগ্রিক সিস্টেমকে বদলানোই আমার উদ্দেশ্য। তাই এ বিষয়ে সকলকে সচেতন করাই আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *