কাবুল বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণ নিতে প্রস্তুত তালেবান

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যাওয়ার চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তারা চলে গেলে বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণ নিতে প্রস্তুত রয়েছে তালেবান। রোববার তালেবানের এক কর্মকর্তা এই তথ্য জা’রিয়েছেন। সেনা প্রত্যাহারের আগে

প্রায় এক হাজার নাগরিক বিমানবন্দর ছাড়ার অপেক্ষায় রয়েছেন। নাম প্র’কাশ না করার শর্তে এক পশ্চিমা নিরাপত্তা কর্মকর্তা স্থানীয় সময় রোববার এ কথা জানান। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই প’শ্চিমা নিরাপত্তাবিষয়ক

কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মা’র্কিন সেনা অভিযান শেষ হওয়ার সময়সীমা জানানো হবে। এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ৩১ আ’গস্টের মধ্যে সেনা প্রত্যাহারের চূড়ান্ত সম’য়সীমা ঘোষণা করেন। বিমানবন্দরের এক কর্মকর্তা জানান, ‘ঝুঁ’কিতে থাকা সব বিদেশি

নাগরিককে আমরা আ’জকের মধ্যেই সরিয়ে নিতে চাই। সব নাগরিক সরিয়ে নেওয়ার পর সেনাবাহিনীও সরিয়ে নেয়া হবে।’ গত দুই সপ্তাহে আফগানিস্তান থেকে ১ লাখ ১৩ হাজার ৫০০ মানুষ স’রিয়ে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও মিত্রদেশগুলো। তবে এখনো হাজার হাজার মানুষ

বিমানবন্দর ছেড়ে যাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন। মার্কিন এক কর্মকর্তা জানান, বিমানবন্দরে চার হাজার মার্কিন সেনা রয়েছে। এদিকে, নাম প্রকাশ না করার শর্তে তালেবানের আরেক কর্মকর্তা র’য়টার্সকে জানান,

প্রকৌশলী ও কারিগরেরা বি’মানবন্দরের নিয়ন্ত্রণ নিতে প্রস্তুত। তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যুক্তরাষ্ট্রের চূড়ান্ত ইশারার অপেক্ষায় আছি। কাবুল বিমানবন্দর পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে নিতে তালেবানও অ’পেক্ষায় আছে।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে পশ্চিমা ওই কর্মকর্তা বলেন, গত বৃহস্পতিবার বি’মানবন্দরের বাইরে আত্মঘাতী বোমা হামলার ঘটনার পর আরও হামলা হতে পারে বলে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এরপর থেকে বিমানবন্দরের গেটে

দেশ ছাড়তে ইচ্ছুক আফগানদের ভিড় কমেছে। বৃহস্পতিবারের ওই হা’ম’লায় বি’স্ফোরণে ১৩ মার্কিন সেনা নি’হ:ত হন। মোট নি’হ:ত হন ১৭৫ জন। আ’হত হন অনেক আফগানও। তালেবান মুখ’পাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ

শনিবার বলেন, শিগগিরই তালেবান বি’মানবন্দরের দখল নেবে। মুজাহিদ বলেন, আফ’গানিস্তানের ৩৪ প্রদেশে গভর্নর ও পু’লিশপ্রধান নিয়োগ দিয়েছে তালেবান। সূত্র : ট্রিবিউন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *