রাশিয়ায় আফগান জঙ্গি চাই না: পুতিন

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন রাশিয়ার পার্শ্ববর্তী দেশগুলোতে আফগান শরণার্থীদের আশ্রয় দেওয়ার প্রস্তাব প্রত্যাখান করেছেন। তিনি বলেন, আমি চাই না জঙ্গিরা এখানে শরণার্থীদের আড়ালে এসে উপস্থিত হোক। রবিবার (২২ আগস্ট) তিনি এ মন্তব্য করেন। রাশিয়ার বৃহত্তম বার্তাসংস্থা তাস নিউজ এজেন্সির বরাত দিয়ে করা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

ভ্লাদিমির পুতিন রাশিয়ার প্রতিবেশি রাষ্ট্রগুলোতে আফগান শরনার্থীদের এনে রাখারও সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, শরনার্থীদের আড়ালে জঙ্গিরা এখানে চলে আসবে এমনটা আমি চাই না। রয়টার্সের খবরে জানানো হয়েছে, ভিসার কার্যক্রম চালানোর জন্য আফগান শরনার্থীদের সাময়িক সময়ের জন্য মধ্য এশিয়ার দেশগুলোতে এনে রাখছে পশ্চিমা দেশগুলো।

পুতিন বলেন, এর অর্থ হচ্ছে চাইলেই মধ্য এশিয়ার দেশগুলোতে ভিসা ছাড়াই যে কাউকে এনে রাখা যায়! অথচ পশ্চিমা রাষ্ট্রগুলো ভিসা ছাড়া কাউকে গ্রহণ করছে না। পশ্চিমা দেশগুলোর এমন কাজকে অন্য রাষ্ট্রের জন্য অপমানজনক বলেও মন্তব্য করেন পুতিন। যুক্তরাষ্ট্র গোপনে বেশ কিছু রাষ্ট্রের সঙ্গেই যোগাযোগ করেছে। এসব রাষ্ট্রে তালেবানের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া আফগানদের সাময়িক আশ্রয় দেয়ার কথা বলছে দেশটি। এরপর ভিসা কার্যক্রম শেষে এখান থেকে যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে আসা হবে এই আফগানদের। তবে পুতিনের আশঙ্কা এদের মধ্যে অনেক জঙ্গি লুকিয়ে থাকতে পারে।

বার্তা সংস্থা তাস জানিয়েছে, পুতিন তার রাজনৈতিক দল ইউনাইটেড রাশিয়া পার্টির নেতাদের সঙ্গে কথা বলার সময় এসব মন্তব্য করেন। পুতিন বলেন, আমরা চাইনা শরনার্থীদের মধ্যে লুকিয়ে কোনো জঙ্গি এখানে প্রবেশ করুক।

গত মে মাস থেকে আফগানিস্তান দখলে অভিযান শুরু করে তালেবান এবং মাত্র তিন মাসের মধ্যে দেশের ৩৪টি প্রদেশের মধ্যে ২৮টি নিজেদের দখলে আনতে সক্ষম হয়। গত ১৫ আগস্ট থেকে রাজধানী কাবুলের নিয়ন্ত্রণও তালেবান বাহিনীর হাতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *