ময়মনসিংহে বেড়েছে তেল-চিনি-ডালের দাম, স্থিতিশীল সবজি

লাগামহীন নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার। বাজারে খোলা সয়াবিন তেল, চিনির দাম প্রতি কেজিতে বেড়েছে ১০ টাকা। বিভিন্ন প্রকার ডালের দাম প্রতি কেজিতে পাঁচ টাকা বেড়েছে। একই সঙ্গে বেড়েছে ব্রয়লার ও সোনালী মুরগির দাম। সব প্রকার ডিমের দামও হালিতে বেড়েছে পাঁচ টাকা। আমদানি বাড়ায় কাঁচামরিচ ও মাছের দাম কিছুটা কমেছে। এছাড়া স্থিতিশীল রয়েছে সবজির দাম।

মেছুয়া বাজারের মুরগি বিক্রেতা সোহাগ মিয়া জানান, গত সপ্তাহের তুলনায় ব্রয়লার মুরগি দাম কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে ১৩০ টাকা আর সোনালী মুরগি ৩০ টাকা বেড়ে ২৩০ টাকা হয়েছে। তবে, দেশি মুরগির দাম কেজিতে ৫০ টাকা কমে হয়েছে ৩৬০ টাকা। কক মুরগি ও কেচো মুরগি প্রতি কেজি ২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে ফার্মের মুরগির ডিম ২৮ টাকা থেকে বেড়ে ৩২ টাকা, দেশি মুরগির ডিম ৫ টাকা বেড়ে ৫৫ টাকা, সোনালী মুরগীর ডিম ৫ টাকা বেড়ে ৫০ টাকা আর হাঁসের ডিম ৫০ টাকা হালি দরে বিক্রি হচ্ছে।ওই বাজারের মাংস বিক্রেতা মো. মোস্তাক মিয়া বলেন, খাসির মাংস প্রতি কেজি ৮০০ টাকা, বকরির মাংস ৭৫০ টাকা এবং গরুর মাংস ৫৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

একই বাজারের আকরামুল ইসলাম বলেন, গত সপ্তাহের তুলনায় প্রায় সব প্রকার ডালের দাম পাঁচ থেকে আট টাকা বেড়েছে। ভাঙ্গা মসুর ডাল ৭০ টাকা, ইন্ডিয়ান মসুর ডাল ৮০ টাকা, দেশি মসুর ডাল ৯২ থেকে ১০০ টাকা, বুটের ডাল ৭০ টাকা, মাসকলাইয়ের ডাল ১২০ টাকা, মুগডাল ১২৫ টাকা, ছোলা বুট ৬৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আর চিনির দাম কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে হয়েছে ৮০ টাকা।

তিনি আরও জানান, বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম প্রতি কেজিতে ছয় টাকা বেড়ে হয়েছে ১৫৩ টাকা। খোলা সয়াবিন তেল ১৩০ থেকে ১৪০ টাকা, কোয়ালিটি তেল ১০ টাকা বেড়ে ১৩০ টাকা এবং পাম তেল পাঁচ টাকা বেড়ে হয়েছে ১২৫ টাকা কেজি।

সবজি বিক্রেতা মিলন মিয়া জানান, কেজি প্রতি কাঁচামরিচ ৯০ টাকা, করলা ৩০ টাকা, গাজর ৮০ টাকা, পটল ৩০ টাকা, শসা ২৫ টাকা, মুখি কচু ২৫ থেকে ৩০ টাকা, টমেটো ১২০ থেকে ১৩০ টাকা, বেগুন ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, চিচিঙ্গা ৪০ টাকা, সিম ১৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া, একটি কুমড়া ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, লেবু ১০ থেকে ১২ টাকা হালি দরে বিক্রি হচ্ছে।

একই বাজারের আক্তারুজ্জামান জানান, রসুন ৫০ টাকা, পেয়াজ ৪০ টাকা, আদা ৯০ টাকা, আলু ২০ থেকে ২৫ টাকা কেজি দামে বিক্রি হচ্ছে।মাছ মহালের মাছ বিক্রেতা মো. শাহজাদা জানান, পাঙ্গাসের দাম ২০ টাকা বেড়ে হয়েছে ১৩০ টাকা কেজি। বাজারে প্রতি কেজি শিং মাছ ৪০০ টাকা, গলদা চিংড়ি এক হাজার টাকা, বড় ইলিশ ১৪০০ টাকা, ছোট ইলিশ ১০০০ টাকা, বড় বাইম মাছ ১২০০ টাকা, রুই মাছ ২৩০ টাকা, কই মাছ ১৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *