‘চীন আরও শক্তিশালী হলে পশ্চিমারা দুর্দশায় পড়বে’

টোরি এমপি এবং হাউস অফ কমন্স ডিফেন্স সিলেক্ট কমিটির চেয়ার টোবিয়াস এলউড বলেছেন, পশ্চিমারা যদি চীনা আগ্রাসনের সমাধান খুঁজে পেতে ব্যর্থ হয়, তবে দেশটি আত্মবিশ্বাসী অবস্থানে চলে যেতে পারে।

চীন যদি আরও শক্তিশালী হয়ে ওঠে, তবে পশ্চিমারা খুব দুর্দশাপূর্ণ শতাব্দীর অভিজ্ঞতার মুখে পড়বে। চীনের সাথে সমস্যা সমাধানের জন্য যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের একসাথে কাজ করা

উচিত।ব্রিটেনের গণমাধ্যম এক্সপ্রেস-এর সঙ্গে এক সাক্ষাত্কারে এলউড সতর্ক বলেন, চীন সম্পর্কে আমাদের যা করা দরকার তা নিয়ে আমরা এখনও বোঝাপড়া করছি। আমার দৃষ্টিতে, এটি সত্যিই খুব গুরুতর, বিশ্ব প্রভাবের দুটি প্রতিযোগিতামূলক ক্ষেত্রে বিভক্ত হয়ে পড়েছে।

তিনি সতর্ক করে বলেন, রাশিয়ার সাথে চীনের শক্তিশালী সম্পর্ক একটি সমস্যা হিসাবে প্রমাণিত হবে। এটি পশ্চিমাদের জন্য আসল পরীক্ষা, যদি এটি সামরিক সংঘাতের সেই বিন্দুতে পৌঁছায়।

ইরান থেকে ‘দিনের আলোয়’ তেল আমদানি করব, হিজবুল্লাহর ঘোষণা

লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহ মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, ইরান থেকে তেল আমদানির জন্য অবশ্যই তার সংগঠন কার্যকর ব্যবস্থা নেবে এবং এই পদক্ষেপ নেওয়া হবে দেশের জনগণের জ্বালানির চাহিদা পূরণ করার জন্য। জ্বালানি তেলের মারাত্মক সংকটের কারণে লেবাননের অর্থনৈতিক অবস্থা যখন দিন দিন খারাপ হচ্ছে তখন এই কথা বললেন হিজবুল্লাহ নেতা সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ।

রবিবার তিনি আরও বলেন, ইরান থেকে তেল আমদানি করা হবে দিনের আলোয়, রাতের আঁধারে নয়। লেবাননের জ্বালানি সংকট দূর করার জন্য পদক্ষেপ নিতে হিজবুল্লাহ সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত বলেও জানান তিনি।

হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, লেবাননের ভেতরে যারা জ্বালানি তেলের মজুদ গড়ে তুলেছে তারা খোলাবাজারে তা বিক্রি করতে পারে। দেশের চলমান সঙ্কটের মধ্যে অনেকেই জ্বালানি তেল প্রতিবেশী সিরিয়ায় পাচার করছে বলেও উল্লেখ করেন হিজবুল্লাহ নেতা।

লেবাননের ভেতরে যে সমস্ত অন্তর্ঘাতমূলক কাজ হচ্ছে এবং দীর্ঘসময় বিদ্যুৎ না থাকার যে ঘটনা ঘটছে সেগুলোর জন্য বৈরুতে মার্কিন দূতাবাস ‘অপারেশন রুম’ হিসেবে কাজ করছে বলে মন্তব্য করেন হাসান নাসরুল্লাহ।

তিনি বলেন, লেবাননে এখন যা ঘটছে ঠিক একই ঘটনা ঘটেছে ইরাকে। তিনি বলেন, মার্কিনিদের বিশ্বাস করলে লেবাননের পরিণতি আফগানিস্তানের মতো হবে। তবে হিজবুল্লাহ সদস্য, লেবাননের জনগণ ও সামরিক বাহিনী মার্কিনিদের এই অপতৎপরতা রুখে দেবে বলে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন হাসান নাসরুল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *