নিজের সব কিছু মানুষকে দান করে পরীমণি পরিস্থিতির শিকার: নানা শামসুল হক

মাদক মামলায় গ্রেপ্তার আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনিকে একনজর দেখতে ঢাকার আদালত প্রাঙ্গনে চলে এসেছেন তার শতবর্ষী নানা শামছুল হক গাজী। সাংবাদিকদের বলেন, ‘কতদিন হলো তাকে দেখি না।’

মঙ্গলবার দুপুরে যখন পরীমনিকে আদালতে তোলার কিছুক্ষণ আগে থেকেই শামছুল হককে আদালত চত্বরে দেখা যায়। জানালেন, পরীমনির এক খালুর সঙ্গে আদালতে এসেছেন তিনি।

শামছুল হকের দাবি, তার বয়স ১১০ বছর। কাঁপা কাঁপা কণ্ঠে বলেন, ‘পরীমিন আমার কাছেই বড় হয়েছে। শেষ বয়সে আমি তার কাছেই থাকছিলাম। মেয়েটার বাপ মা কেউ নাই। আমার কাছেই বড় হয়েছে, মানুষ হয়েছে।

তিনি জানান, নিজের জন্য জীবনে সে কিছু করে নাই। সব কিছু মানুষকে দান করে এখন সে পরিস্থিতির শিকার হয়েছে। নিজে একটা ফ্ল্যাট করে নাই। প্রত্যেক বছর এফডিসিতে কোরবানি দেয় গরীবদের জন্য। সব কিছু মানুষকে বিলিয়ে দেয়। এখন আল্লাহ পাক যদি ওরে মাপ করে আরকি।

পরীমণির বাসায় মাদক পাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাসায় খালি বোতল ছিল। এগুলো মাদকের বোতল কিনা জানি না।

‘ওর জন্য দুশ্চিন্তায় আমার ঘুম হয় না। কেউ নেই ওকে দেখার জন্য। আমার নিজেরও কিছুদিন অপারেশন হয়েছে। এখনও আমি অসুস্থ। তাকে কতদিন দেখি না। তাই বাধ্য হয়েই একনজর দেখতে আদালতে এসেছি।’

নাতনির মুক্তি দাবি করেন কি না জানতে চাইলে শামছুল হক বলেন, ‘তারা যদি দয়া করে মুক্তি দেয়, আমার আর কিছু বলার নেই।’

উল্লেখ্য, গত বুধবার (৪ আগস্ট) সন্ধ্যায় রাজধানীর বনানীতে নিজ বাসা থেকে মাদকসহ গ্রেফতার করা হয় আলোচিত-সমালোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণিকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *