আফগানিস্তানে নিবিড় দৃষ্টি রাখছে ঢাকা!

প্রতিবেশী আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতির দিকে নিবিড় দৃষ্টি রাখছে বাংলাদেশ। সেখানে সৃষ্ট ক্রমবর্ধমান অনিশ্চয়তার বিষয়েও পুরোপুরি সজাগ ঢাকা। আপাতত পরিস্থিতির দিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার নীতিই অনুসরণ করা হচ্ছে। তালেবানকে রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া বা তাদের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপনের আপাতত কোনো পরিকল্পনা বাংলাদেশের নেই। ঢাকার সরকারি সূত্রগুলো এমন তথ্য জানিয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা জানান, আফগানিস্তান থেকে অনেক দেশ তাদের দূতাবাসকর্মীদের ফিরিয়ে নিচ্ছে। আফগানিস্তানে বাংলাদেশের দূতাবাস নেই। তাই ঢাকাকে এমন কোনো সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে না। তবে আফগানিস্তানে বাংলাদেশিরা কাজ করছেন। তাঁদের ফিরিয়ে আনার বিষয়ে এখনো কোনো অনুরোধ পায়নি সরকার। পরিস্থিতি অনুযায়ী এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, আফগানিস্তানে শান্তি ও স্থিতিশীলতার পক্ষে বাংলাদেশ। সেখানে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে বিভিন্ন দেশের নানা রকম স্বার্থ ও সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ আছে। গত সপ্তাহে নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে

আফগান দূত পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তালেবানকে লালন-পালন ও পৃষ্ঠপোষকতার অভিযোগ এনেছেন। আবার পশ্চিমা বিভিন্ন দেশ তালেবানকে রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে স্বীকার করেছে। তালেবান এরই মধ্যে দেশটির বিভিন্ন শহর দখল করা শুরু করেছে। আফগানিস্তানে বড় ধরনের রাজনৈতিক পরিবর্তন আসছে। এর প্রভাব পুরো অঞ্চলের নিরাপত্তার ওপর পড়তে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *