মোবাইল প্রেমে-বিয়ে; স্বামীর স্বর্ণালংকার টাকা নিয়ে লাপাত্তা শরিফা

মোবাইলের মাধ্যমে প্রেম। বিয়ের পর. দীর্ঘ এক মাস অনুপস্থিত। স্বামী জানায়, তার স্ত্রী শরিফা আক্তার (২৯) নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার ও দুটি মোবাইল সেট নিয়ে পালিয়ে যায়। জানা গেছে, রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের এএইচ খালেক শেখের ছেলে ফারুক শেখ দৌলতদিয়া একটি চায়ের দোকানে কাজ করেন। ওই চায়ের দোকানে কাজ করার সময় মোবাইল ফোনে এক মেয়ের প্রেমে পড়েন তিনি।

এভাবে দীর্ঘ প্রেমের পর দুজনের ইচ্ছায় গাঁটছড়া বাঁধলেন তারা। মেয়েটি শরিফা আক্তার টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতী উপজেলার তুফায়েল মিয়ার মেয়ে। বিয়ের দুই মাস পর স্ত্রী শরিফা তার অপর প্রেমিকসহ স্বামীর ভাড়া বাসা থেকে স্বর্ণালঙ্কার, নগদ টাকা ও দুটি মোবাইল সেট নিয়ে পালিয়ে যায়।

ঘটনার কয়েকদিন পর শুক্রবার তার স্বামী ফারুক গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন বলে জানান তিনি। ডায়েরি নং ১৪৩/২০২২ ইঞ্জি. তবে এক মাসের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও তার স্ত্রী শরীফা আক্তার ফিরে না আসায় বাবার বাড়িতে যাননি।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার জানান, ফারুকের বাড়ি থেকে স্ত্রী শরিফা আক্তার পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন ফারুক।

শরিফা আক্তারও মোবাইলে প্রেম করে আরও ২ বার বিয়ে করেন। ফারুক জানান, তার স্বামী সেখান থেকে পালিয়ে গেছে বলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.