দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে হেলিকপ্টারেই বাড়ি ফিরলেন ৫৬ বছরের ‘ব্যস্ত মুফতি’

যশোরের অভয়নগরে হেলিকপ্টার করে দ্বিতীয় বৌকে নিয়ে গেলেন আল ফারুক প্রপার্টিজের চেয়ারম্যান এবং যশোর জামেয়া ইসলামী মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা ও মহাপরিচালক মুফতি লুৎফর রহমান ফারুকী। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক আলোচনা সৃষ্টি হয়েছে।
সোমবার বিকেল ৩টার দিকে ঐ উপজেলার শ্রীধরপুর ইউনিয়নের দিঘিরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, বিকেলে একটি হেলিকপ্টার দিঘিরপাড় গ্রামে অবতরণ করে। এরপর একই গ্রামের আব্দুল মান্নানের মেয়ে খাদিজা পারভীন লিপির সঙ্গে মুফতি লুৎফর রহমান ফারুকীর বিয়ে সম্পন্ন হয়। লিপির দুটি ছেলে আছে। এটি দুজনেরই দ্বিতীয় বিয়ে।

জানা গেছে, মুফতি লুৎফর রহমান ফারুকীর প্রথম স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। তিনি যশোরের মণিরামপুর উপজেলার সুন্দলপুর গ্রামের আফতাব উদ্দিনের ছেলে।

বিয়ে নিয়ে মুফতি লুৎফর রহমান ফারুকী জানান, প্রথম স্ত্রীর অনুমতি নিয়েই তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন। ব্যস্ততার কারণে সময় বাঁচাতে তিনি হেলিকপ্টার নিয়ে বিয়ে করতে এসেছেন। অন্য কোনো ব্যাপার নয়। বিয়ের কারণ হিসেবে ব্যক্তিগত সমস্যার কথা বলেন তিনি। খাদিজা পারভীন লিপির সঙ্গে বিয়ের বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি মুফতি ফারুকী।

বিয়ের ঘটক আশেক এলাহী জানান, দুই পরিবারের সম্মতিতেই এ বিয়ে হয়েছে। করোনার কারণে ঘরোয়া পরিবেশে বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। এলাকাবাসীকে জানানো হয়নি। তবে হেলিকপ্টার দেখে মানুষ ভিড় করেছে।

অভয়নগর উপজেলার শ্রীধরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী মোল্যা বলেন, খাদিজা পারভীন লিপির সঙ্গে তার প্রথম স্বামীর ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে। দ্বিতীয় বিয়ের পর মুফতি লুৎফর রহমান ফারুকী তার নতুন বৌ ও দুই ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে হেলিকপ্টারে করেই নিজ বাড়িতে চলে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *