যুক্তরাষ্ট্র-ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা প্রতিষ্ঠানে মুসলিম দেশের হ্যাকারদের হা’ম’লা চালালো!

সন্দেহভাজন ইরানি হ্যা’কাররা বেশকিছু আমেরিকান ও ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা প্রযুক্তি এবং নৌ পরিবহন সংস্থাকে আ’ক্র’মণের লক্ষ্যবস্তু বা’নিয়েছে। এর মধ্যে কয়েকটিতে সফলও হয়েছে তারা। গতকাল সোমবার মাইক্রোসফট জানিয়েছে, গত জুলাইয়ে ইরানি হ্যা’কাররা গু’প্তচরবৃ’ত্তি অভিযান শুরুর পর বেশকিছু কোম্পানি হ্যা’কিংয়ের ঝুঁ’কিতে রয়েছে।

মাইক্রোসফট জানায়, ইরানি হ্যা’কারদের লক্ষ্যবস্তুতে থাকা কোম্পানির মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এবং ই’সরা’য়েল সরকারের সঙ্গে কাজ করে এমন প্রতিষ্ঠানও রয়েছে যারা স্যাটেলাইট সিস্টেম, ড্রো’ন প্রযুক্তি এবং ‘মি’লিটারি-গ্রেড রা’ডার’ তৈরি করে।

আমেরিকান প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান আইবিএম জানিয়েছে, এটা সামুদ্রিক খাতে স্পর্শকাতর তথ্যের জন্য ইরানি হ্যা’কার গোষ্ঠীর সর্বশেষ প্রচেষ্টা। গত বছর অন্য আরেকটি ইরানি হ্যা’কাররা আমেরিকার নৌ সদস্যের সামরিক ইউনিটের তথ্য চুরি করেছিল।

এক ব্লগ পোস্টে মাইক্রোসফট জানিয়েছে, বাণিজ্যিক স্যাটেলাইট চিত্রাবলী ও জাহাজ পরিচালনা পরিকল্পনা প্রতিষ্ঠানে এই প্রবেশাধিকার অর্জন ইরানের বিকাশমান স্যাটেলাইট প্রযুক্তিকে সহায়তা করতে পারে। যদিও মাইক্রোসফট এই ঘটনার জন্য সরাসরি ইরানি সরকারি প্রতিষ্ঠানকে দায়ী করেনি।

তার পরিবর্তে প্রতিষ্ঠানটি বলেছে, অন্য আরেকটি ইরানি হ্যা’কারদের হ্যা’কিং কৌশলসহ এই হ্যা’কিং বিভিন্ন কারণে ইরানের ‘জাতীয় স্বার্থকে সমথন করে’। মাইক্রোসফট থ্রেট ইন্টেলিজেন্স সেন্টারের প্রধান জন ল্যামবার্ট সিএনএনকে বলেছেন, চলতি গ্রীষ্মে একটি আমেরিকান ফিনান্সিয়াল সার্ভিস ফার্মের ত্রুটির জবাব দেওয়ার সময় এই হ্যা’কিং কার্যকলাপ ধরা পড়ে। সূত্র: সিএনএন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *