দেব‌র-ভা‌বির অ‌বৈধ সম্পর্ক, অতঃপর

ভাবির সাথে দেব‌রের অ‌বৈধ সম্প‌র্কের জে‌রে স্ত্রীকে নির্যাতনের অ‌ভি‌যো‌গে দা‌য়ের করা মামলায় স্বামী খালেক উজ জামান প্রিন্সকে (৩৫) কারাগা‌রে পাঠিয়েছেন শরীয়তপুরের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

সোমবার (১১ অক্টোবর) সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সামসুল আলমের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন কর‌লে বিচারক আসামী‌কে কারাগা‌রে পাঠানোর নি‌র্দেশ দেন।আসামী খালেক উজ জামান প্রিন্স যশোরের পুরাতন কশবা এলাকার মোজাম্মেল হকের ছেলে। সে দীর্ঘ‌দিন স্ত্রীর দা‌য়ের করা মামলার পালাতক আসামী ছি‌লেন।

মামলার বাদী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মামলার বাদী শরীয়তপু‌র সদর উপ‌জেলা দাশার্তা গ্রা‌মের বা‌সিন্দার সাথে প্রে‌মের সম্পর্ক মাধ্য‌মে ২ বছর পূর্বে য‌শো‌রের খালেকের বিয়ে হয়। বিয়ের পরে খালেক ও তার ভা‌বি দুলারির সা‌থে প্রেমের সম্পর্ক চল‌ছিল। একপর্যা‌য়ে তাদের অবৈধ সম্পর্ক নববধূর দৃষ্টিগোচর হলে বিষয়টি পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের অবগত করে। পরবর্তীতে এঘটানাকে কেন্দ্র ক‌রে স্ত্রীর উপর মানসিক ও শারিরিক অত্যাচার শুরু হয়।

গত বছর ক‌রোনাকালীন সম‌য়ে স্ত্রীর প‌রিবা‌রের থে‌কে বি‌ভিন্ন অযুহা‌তে টাকা দি‌তে চাপ প্র‌য়োগ ক‌রে স্বামীর প‌রিবার। প‌রিবা‌রের প্ররোচনায় প্র‌তি‌দি‌নি নির্যাতন করতে থা‌কে খালেক। ক‌রোনায় লকডাউ‌ন চলাকালীন সময় নির্যাত‌নের ক‌রে অসুস্থ্য হ‌লে স্ত্রী‌কে য‌শো‌রের হাসপাতা‌লে নি‌য়ে চি‌কিৎসাও করা‌নো হয়। প‌রে সীমাহীন অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে মামলার বাদী শরীয়তপু‌রের আদালতে স্বামী ও স্বামীর পর‌কিয়া প্রে‌মিকার ভা‌বির বিরু‌দ্ধে মামলা দা‌য়ের করেন।

মামলার বাদী নাম প্রকাশ না করা শ‌র্তে বলেন, দুলারির স্বামীর আর্থিক দূর্বলতার কারণে দেবর খালেকের কাছ থেকে আর্থিক সহায়তা গ্রহণ করত। খালেক ও দুলারি সহপাঠি থাকা অবস্থায় তাদের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক তৈ‌রি হয়। পরবর্তীতে খালেকের বড় ভাই রফিকুজ্জামানের সাথে দুলারির পা‌রিবা‌রিক ভা‌বে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে খালেক ও

দুলারির মধ্যে পরকিয়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আমাদের বিয়ে মেনে নিতে না পেরে বিয়ের কিছুদিন পরেই খালেক-দুলারির অবৈধ সম্পর্কের বিষয়‌টি দে‌খে ফে‌লি। এ‌তে ক্ষিপ্ত হয়ে খালেক আমাকে শারিরিক নির্যাতন করতে থাকে। তাই আমি বা‌পের বা‌ড়ি এ‌সে মামলা দায়ের করে‌ছি। এই বিষয়‌ সম্প‌র্কে জান‌তে য‌শো‌রের খা‌লে‌কের বড় ভাই ও তার প‌রিবা‌রের সা‌থে যোগা‌যোগ করার চেষ্টা করেও সেটা সম্ভব হয়‌নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *