এস-৪০০ নিয়ে এক পা-ও পিছিয়ে আসা সম্ভব নয়-তুরস্কের হুংকার

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান বলেছেন, ওয়াশিংটনের সঙ্গে তার দেশের সম্পর্ক ভালো অবস্থায় নেই।জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম বার্ষিক অধিবেশনে যোগ দিতে বর্তমানে নিউ ইয়র্কে অবস্থান করছেন এরদোগান।সেখানে তিনি সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন বলে তুর্কি দৈনিক সাবাহ জানিয়েছে।

এরদোগান বলেন, সত্যি কথা বলতে আমি একথা বলতে পারছি না যে, আমেরিকা-তুরস্ক সম্পর্ক ভালো যাচ্ছে। আমরা এফ-৩৫ যু’দ্ধবিমান কিনেছি এবং এর জন্য অর্থ পরিশোধও করেছি। কিন্তু বিমানগুলো এখন পর্যন্ত আমাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়নি।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, “তারা রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ ক্ষে’পণা’স্ত্র ব্যবস্থা কেনার ‘অভিযোগে যু’দ্ধ’বিমানগুলো আমাদেরকে দিচ্ছে না।” এরদোগান সাংবাদিকদের বলেন, আমেরিকা এস-৪০০ নিয়ে আ’ঙ্কারার ওপর সার্বক্ষণিক চাপ প্রয়োগ করে যাচ্ছে যা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।আমরা এই ব্যবস্থার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছি। সেখান থেকে এক পা-ও পিছিয়ে আসা সম্ভব নয়।

আমেরিকার তীব্র বিরোধিতা সত্ত্বেও ২০১৯ সালের জুলাই মাসে রাশিয়ার কাছ থেকে প্রথম দফা এস-৪০০ ব্যবস্থা গ্রহণ করে তুরস্ক। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে তুরস্ক ও রাশিয়ার মধ্যে এই ব্যবস্থা কেনার ব্যাপারে চুক্তি সই হয়। এই ব্যবস্থা কেনা নিয়ে গত কয়েক বছর ধরে আমেরিকার সঙ্গে তুরস্কের সম্পর্কে তীব্র টা’নাপ’ড়েন চলছে।

আমেরিকা দাবি করছে, তুরস্ক এস-৪০০ ব্যবহার করলে রাশিয়া ন্যাটো জোটের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার গোপন তথ্য জেনে যেতে পারে এবং সেক্ষেত্রে ন্যাটোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা দুর্বল হয়ে পড়বে। তুরস্ক অবশ্য এ দাবি প্রত্যাখ্যান করে এসেছে। এস-৪০০ ব্যবস্থায় পাঁচ থেকে ৬০ কিলোমিটার দূরত্বে শ’ত্রুর যেকোনো লক্ষ্যবস্তু শনা’ক্ত করে তাতে একযোগে ৭২টি ক্ষে’পণা’স্ত্র নি’ক্ষেপ করার ব্যবস্থা রয়েছে।সূত্র:পার্সটুডে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *