অক্টোবরে ইরাক ছাড়ছে মার্কিন সেনারা

ইরাকের প্রধানমন্ত্রী বদর আল-জায়াদি বলেছেন, এ বছরের অক্টোবর থেকেই মার্কিন সেনা প্র’ত্যাহার শুরু কবে। প্রথম ধাপে যু’দ্ধসেনাদের ইরাক থেকে প্রত্যাহার করা হবে বলে জানান তিনি। কিছু সেনা কর্মকর্তাকে

ইরাকে রেখে দেওয়া হবে দেশটির সে’নাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য। খবর আরব নিউজের। ইরাকের এক এমপিও গণমাধ্যমকে একথা জানিয়েছেন। গত জু’লাইয়ে বাগদাদ-ওয়াশিংটন চুক্তির

আলোকেই ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হচ্ছে। ইরাকের প্রধানমন্ত্রী বদর আল-জায়াদি বলেন, ২০২২ সালের ১ জানুয়ারির পর ইরাকে আর কোনো মার্কিন যু’দ্ধ’সেনা থাকবে না। তবে, সেনা প্র’ত্যাহারের

পরও মা’র্কিনজোট ইরাকের বিভিন্ন স্থানে আইএস লক্ষ্যবস্তুতে বিমান ও ড্রো’ন হা’মলা চালাতে পারে। বর্তমানে ইরাকে আড়াই হাজার মা’র্কিন সেনা অবস্থান করছেন।

এদের মধ্য থেকে কতজনকে ইরা’কের সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য বাগদাদে অ’বস্থান করবে তা জানানো হয়নি। মার্কিন সে’নাবাহিনীর

মধ্য’প্রাচ্যঅঞ্চলের প্রধান জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জিও গতবছর গণমাধ্যমকে ইরাক থেকে সেনা প্রত্যাহারের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। ২০০৩ থেকে আল-কায়দা দমনের নামে ইরাকে হামলা চালায় মার্কিন সামরিক জোট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *