আফগানিস্তানে সাহায্যের জন্য ৬০০ মিলিয়ন ডলার সাহায্য চাচ্ছে জাতিসংঘ

আফগানিস্তানে মানবিক সংকট এড়াতে ৬০০ মিলিয়নেরও বেশি মার্কিন ডলার সহায়তা খুঁজছে জাতিসংঘ। খবর বিবিসি’র। সহায়তার লক্ষ্যে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় একটি সম্মেলনের আয়োজন করেছে জাতিসংঘ। গত মাসে আফগানিস্তান তালেবানের নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার

পরিপ্রেক্ষিতে দেশটিতে মা’নবিক সংকট দেখা দিয়েছে। গত ১৫ আগস্ট তালেবান আফগানিস্তান দখল নেওয়ার আগে থেকেই দেশটির ১ কোটি ৮০ লাখ মানুষ আন্তর্জাতিক সহায়তার ওপর নি’র্ভরশীল ছিলো, যা

দেশটির মোট জনসংখ্যার প্রায় অ’র্ধেক। জাতিসংঘসহ বিভিন্ন সাহায্য সংস্থার কর্মকর্তারা সতর্ক করে বলেছেন, খরা, নগদ অর্থের স্বল্পতা ও খাদ্যের অভাবের কারণে এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। আ’ফগান সরকারের

পতনের আগে দেশটি বি’দেশি সহায়তা পেয়ে আসছিলো। কিন্তু তালেবান ক্ষমতায় আসায় সহায়তা বন্ধ হয়ে যায়। জাতিসংঘের ম’হাসচিব আ’ন্তোনিও গুতেরেস বলেন, তার সংস্থা বর্তমানে আর্থিক সং’কটে রয়েছে। নিজেদের

কর্মীদের বেতন পর্যন্ত দেয়া স’ম্ভব হচ্ছে না। জাতিসংঘের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে যে ৬০০ মি’লিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ সহায়তা চাওয়া হয়েছে, তার এক-তৃতীয়াংশ খরচ করা

হবে জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে (ডব্লিউএফপি)। কারণ, আফগানিস্তানে খাদ্য, ওষুধ, স্বাস্থ্য সেবা, নিরাপদ পানি ও স্যা’নিটাইজেশন খুব প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *