নোয়াখালীতে কোরআন অবমাননায় দম্পতি আটক

পবিত্র কোরআন শরিফ অবমাননার অভিযোগে নোয়াখালীর সদর উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়ন থেকে টুটন শাহ (৩৫) ও ইয়াসমিন আক্তার (২৯) নামের এক দম্পতিকে আটক করেছে পুলিশ।

আটকের পর তারা দু’জন ঘটনার জন্য একে অপরকে দায়ী করছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। রোববার সকালে রামকৃষ্ণপুর গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২০১১ সালে প্রেমেরে সম্পর্কের সূত্র ধরে রামকৃষ্ণপুর গ্রামের শাহ বাড়ির হারাধন শাহের ছেলে টুটন শাহ ধর্মান্তরিত হয়ে একই এলাকার ইয়াসমিন আক্তারকে বিয়ে করেন। তাদের দুই সন্তান রয়েছে।

গত কয়েক মাস ধরে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে ঝামেলার সৃষ্টি হয়। পরে টুটন তার স্ত্রী ইয়াসমিনকে ইসলাম ধর্ম বাদ দিয়ে হিন্দুধর্ম পালনের নির্দেশ দেয়। এ নিয়ে গত কয়েকদিন আগে ইয়াসমিন অসুস্থ হলে চিকিৎসার জন্য টুটনের কাছে টাকা চাওয়াতে সে হিন্দুধর্ম গ্রহণ করলে তাকে টাকা দিবে বলে জানায় টুটন।

রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নিজ ঘরে বসে পবিত্র কোরআন শরিফ পড়ছিলেন ইয়াসমিন। বিষয়টি দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে তার হাত থেকে কোরআন শরিফ নিয়ে পাশের পুকুরে ফেলে দেয় টুটন। ঘটনাটি এলাকাবাসী দেখতে পেলে লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের দু’জনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এদিকে আটককৃত টুটন পুলিশকে জানায় আগে ইয়াসমিন একটি গীতা পানিতে ফেলে দিয়েছিলো।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহেদ উদ্দিন জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল থেকে ওই দম্পতিকে আটক করা হয়েছে। ধর্ম অবমানানায় তারা দু’জন দু’জনের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *