পরীমনিকে নিয়ে যা বললেন শাহরিয়ার কবির

একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির মাদকের মামলার গ্রেফতার চিত্রনায়িকা পরীমনিকে বারবার রিমান্ডে নেওয়ার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন। রবিবার (২২ আগস্ট) বিক্ষুব্ধ নাগরিকজন’র আয়োজনে এ সমাবেশে এক ভিডিওবার্তায় তিনি বলেন, আদালতের রায়ের আগেই সোশাল মিডিয়া ও গণমাধ্যমে পরীমনিকে অপরাধী সাব্যস্ত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন শাহরিয়ার কবির। নারীদের প্রতি বিদ্বেষমূল সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে সংবাদ মাধ্যমকে সংযত হওয়ার আহ্বানও জানান তিনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়নে বিস্ময়কর অগ্রগতি সাধন করেছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী, বিরোধীদলীয় নেত্রী ও স্পিকার নারী; তারপরও নারীকে কেন অপমানিত হতে হবে? পরীমনিকে কেন বারবার রিমান্ডে নিতে হবে? কেন আদালত পুলিশের বিরুদ্ধে সুয়োমোটো জারি করবে না? তিনি বলেন, তাকে নিয়ে নানা ধরনের অস্বস্তিকর ও অগ্রহণযোগ্য বক্তব্য কোনো সভ্য সমাজে কাম্য হতে পারে না। নারীদের বিরুদ্ধে এ ধরনের কথা বলা হচ্ছে, কিন্তু রাষ্ট্র কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এই মানসিকতা পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতা।

এদিকে, মানববন্ধনে নির্মাতা অপারজিতা সংগীতা বলেন, শুরু থেকেই পরীমনির সঙ্গে অন্যায় হচ্ছে। তার নির্দিষ্ট অপরাধের প্রমাণ এখনো জানা যায়নি। প্রতি মুহূর্তে পরীমনি সাইবার বুলিংয়ের শিকার হচ্ছেন। এ জন্য কোনো ধরনের ব্যবস্থা নিচ্ছে না প্রশাসন। পরীমনি ক্ষমতাশীল ব্যক্তিদের আক্রোশের শিকার। চলচ্চিত্র নির্মাতা রাশিদ পলাশ বলেন, পরীমনির এ সময় শুটিংয়ে থাকার কথা ছিল। কিন্তু সে আজ কারাগারে। মানুষ ভুল-ত্রুটির উর্ধ্বে নয়। তাকে সন্ত্রাসী কায়দায় আদালতে আনা হচ্ছে। যা অনেক বড় সন্ত্রাসীর বেলায়ও ঘটে না। সে কোনো সন্ত্রাসী নয়। তাকে মানসিকভাবে নির্যাতন করা হচ্ছে। সময় মতো শুটিং করতে না পরায় আমাদের অনেক ক্ষতি হয়ে গেছে। পরীমনি একজন শিল্পী তাকে মুক্তি দেওয়া হোক।

উল্লেখ্য, গত ৪ আগস্ট রাতে প্রায় চার ঘণ্টার অভিযান শেষে বনানীর বাসা থেকে পরীমনি ও তার সহযোগী দীপুকে আটক করে র‍্যাব। এ সময় পরীমনির বাসা থেকে বিভিন্ন মাদক জব্দ করা হয়। ৫ আগস্ট র‍্যাব-১ বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য আইনে পরীমণি ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে বনানী থানায় মামলা করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *