মা ঘরে ঢুকে দেখে প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষণ করছে ভিক্ষুক

নেত্রকোনা মদন উপজেলার পল্লীতে এক বুদ্ধি ও বাক প্রতিবন্ধী তরুণীকে (১৯)ধর্ষণের অভিযোগে নয়ন মিয়া (৩৫) নামক এক ভিক্ষুককে স্থানীয়রা আটক করেছে। ভিক্ষুক নয়ন মিয়া কিশোরগঞ্জ জেলার

রায়টুটি ইউনিয়নের রাজী গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে। উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নে নিজ ফতেপুর গ্রামে রবিবার (১৫ আগষ্ট) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। পরে বিকালে অভিযুক্ত নয়ন মিয়াকে মদন থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পুলিশ , স্থানীয় লোকজন ও ভুক্তভোগী তরুণীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, ফতেপুর গ্রামের ওই তরুণীর ৪ বোন ১ ভাইয়ের মধ্যে ৩ জনেই প্রতিবন্ধী। রবিবার দুপুরে তরুণীর মা কাজের জন্য বাড়ির সামনে চলে যান। এ সময় ওই বুদ্ধি ও বাক-প্রতিবন্ধী খালি ঘরে শুয়ে থাকে। ভিক্ষা করতে আসা নয়ন মিয়া ওই তরুণীকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। তরুণীর মা ঘরে এসে এ ঘটনা দেখতে পেয়ে চিৎকার শুরু করে। পরে স্থানীয় লোকজন ভিক্ষুক নয়ন মিয়াকে আটক করে পুলিশের নিকট হস্তান্তর করে।

তরুনীর মা বলেন, ঘরে এসে দেখি আমার প্রতিবন্ধী মেয়েটিকে একা পেয়ে ধর্ষণ করছেন ভিক্ষুক নয়ন মিয়া। আমার চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এসে তাকে আটক রেখে থানায় খবর দেয়। আমার মেয়েটির রক্তকরণ হচ্ছে। আমি এর ন্যয় বিচার চাই।

অভিযুক্ত ভিক্ষুক নয়ন মিয়া বলেন, আমি তাদের বাড়িতে ভিক্ষা করতে এসেছিলাম। ধর্ষণের বিষয়টি অস্বীকার করেন তিনি। মদন থানার উপ পরিদর্শক (এস আই) আশরাউল ইসলাম বলেন, আমি ঘটনাস্থলে আছি। ভিক্ষুককে আটক করা হয়েছে। উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ মোতাবেক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *