‘ক্ষমতায় গেলে তালেবানই কূটনীতিকদের নিরাপত্তা দেবে’

আফগানিস্তানে মোতায়েন প্রতিটি বিদেশি সেনাকে দখলদার মনে করে তালেবান। কাজেই আমেরিকাকে কূটনীতিক ছাড়া বাকি সব সেনা ও বেসামরিক ব্যক্তিকে আফগানিস্তান থেকে প্রত্যাহার করে নিতে হবে। আর

ক্ষমতায় গেলে তালেবানই পশ্চিমা কূটনী:তিকদের নিরাপত্তা দেবে। বুধবার ইরানের ইংরেজি ভাষার নিউজ চ্যানেল প্রেসটিভিকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেছেন তালেবানের সিনিয়র নেতা মোল্লা খয়রুল্লাহ

খয়েরখা। তিনি বলেন, “তারা একথা মেনে নিয়েছে যে, কূটনীতিক ছাড়া সব মা’র্কিন নাগরিককে আফগানিস্তান ত্যাগ করতে হবে এবং একথাটি সুস্পষ্টভাবে [চুক্তিতে] লেখা রয়েছে।” এই তালেবান নেতা বলেন, “সব ন্যাটো

সেনাকে আফগানিস্তান ত্যাগ করতে হবে; এমনকি যেসব সেনাকে তাদের দূতাবাসগুলো র:ক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত করা হয়েছে তাদেরকেও চলে যেতে হবে। কারণ, আমরা যদি আফগানিস্তানের সরকারের দায়িত্ব গ্রহণ করি তাহলে

তাদের দূতাবাস ও কূটনীতিকদের নিরাপত্তা আমরাই নিশ্চিত করব।” সা:ক্ষাৎকারের অন্য অংশে মোল্লা খয়েরখা বলেন, আমেরিকা ও তার ন্যাটো মি’ত্র দেশগুলো আফগানিস্তানে নিরাপত্তা প্র’তিষ্ঠা করতে ব্যর্থ হয়েছে।

তারা নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার নামে এদেশে দেড় লাখ সেনা মোতায়েন করেছে কিন্তু নিরাপত্তা দিতে পারেনি। তালেবানের এই সিনিয়র আলোচক বলেন, অতীতে ব্রিটিশ ও সো’ভিয়েত সেনারাও আফগানিস্তানে এসে

টিকতে পারেনি এবং মার্কিন সরকার যদি আবার এদেশে আসতে চায় তবে তাকে গত ২০ ব’ছরের পরিণতি ভোগ করতে হবে। কাজেই আ’ফগানিস্তানে আমেরিকার

প্রত্যাবর্তনে মার্কিন বা আ’ফগান জনগণ কারোই লাভ হবে না। তিনি স্পষ্ট করে বলেন, সবকিছু যদি তালেবানের বিপক্ষে চলে যায় তাহলে তারা আলোচনার দরজা পুরোপুরি বন্ধ করে দেবেন। উৎস, পার্সটুডে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *