স্বপ্ন পূরণ হলো না ছাত্রলীগ সভাপতির

অবশেষে ব্রাজিলকে হারিয়ে ২৮ বছর পর কোন আন্তর্জাতিক শিরোপা জিতলো আর্জেন্টিনা। মেসি পেলেন তার প্রথম আন্তর্জাতিক শিরোপা। রিও ডি জেনিরোর বিখ্যাত মারাকানায় সেলেসাওদের ১-০ গোলে হারিয়ে কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন এখন আর্জেন্টিনা। ১৯৯৩ সালের পর প্রথম কোন আন্তর্জাতিক ট্রফি জেতে আর্জেন্টিনা।

আর সেই সঙ্গে আক্ষেপ ঘুচলো লিওনেল মেসিরও। ক্যারিয়ারের একমাত্র আক্ষেপ ছিল দেশের হয়ে একটি ট্রফি, সেটাও হয়ে গেলো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলকে হারিয়ে। মারাকানায় ব্রাজিল সবশেষ ম্যাচ হেরেছিল ১৯৫০ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালে। সেই ম্যাচটি এখনও মারাকানা ট্র্যাজেডি নামে পরিচিত।

এর আগে বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় জানালেন, আমি ছোট বেলা থেকেই ব্রাজিলের ভক্ত। ব্রাজিলের খেলা মানেই হচ্ছে ছন্দ। ফুটবলের ছন্দময় খেলা যদি কোন দল খেলে থাকে সেটা হচ্ছে ব্রাজিল।

কেন ব্রাজিল দলকে পছন্দ করেন এমন প্রশ্নের জবাবে আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, পৃথিবীর সব থেকে জনপ্রিয় খেলা হচ্ছে ফুটবল। ফুটবল যখন থেকে বুঝি তখন থেকেই ব্রাজিলের সমর্থক আমি। ব্রাজিলের এবারের দলটা চমৎকার। যারা আছেন, তারা বিভিন্ন দেশের লিগে ডমিনেট করেছেন। সেই শুরু থেকেই দুর্দান্ত এক ব্রাজিলকে আমি দেখছি। তাদের খেলার একটা ছন্দ আছে, মাধুর্যতা আছে। তাই ব্রাজিলকেই আমার ভালো লাগে।

ব্রাজিলের কার কার খেলা আপনার ভালো লাগে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমার প্রিয় খেলোয়াড় পেলে। আর এখন যদি বলেন নেইমার। বর্তমানে নেইমার দুর্দান্ত খেলছে। এ সময়ে তার মতো এত দক্ষ খেলোয়ার খুব কমই দেখা যায়, যার কারণে বিশ্বজুড়ে তার এত ভক্ত।

এ সময় জয় বলেন, ২০০২ বিশ্বকাপ খেলা আমি খুব ভালোভাবে দেখেছি। এবং ওই বিশ্বকাপের খেলা দেখে আমি এতটাই মুগ্ধ হয়েছি যা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। ২০০২ সালের বিশ্বকাপে ব্রাজিলের দলটা ছিল দুর্দান্ত। রোনালদো, রিভালদো, রোনালদিনহো, রবার্তো কার্লোস, কাফু, এই দল দিয়ে যে কোনোভাবে, যে কোনো মুহূর্তেই গোলের দেখা পেতো তারা। প্রতিটা ম্যাচ জিততে পারতো। একারণেই সেই আসরের সাতটি ম্যাচই জিতেছিলো তারা। হয়েছিল বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন।

তিনি আরও বলেন, সবসময়ই মুখিয়ে থাকি ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনার খেলা দেখার জন্য। ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনার খেলা হলে তো কথাই নেই। এবারের কোপার ফাইনালে ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনা খেলা হবে। জমবে বেশ। আর্জেন্টিনাও ভালো দল। তাদের মেসির মতো একজন দারুণ খেলোয়াড় আছে। তবে জিতবে ব্রাজিল।

এ সময় কোপা শিরোপা জয়ের ব্যাপারে তিনি বলেন, কোপা আমেরিকার ফাইনালে লড়াইয়ের পরিসংখ্যানে আর্জেন্টিনা এগিয়ে থাকলেও শেষ দু’বারের ফাইনালের দেখায় ব্রাজিলই জয় পেয়েছে। আর্জেন্টিনা সবশেষ কোপা আমেরিকার ফাইনালে জয় পেয়েছে ১৯৯৩ সালে। অন্যদিকে ব্রাজিল কোপার সবশেষ আসরের চ্যাম্পিয়ন। তাছাড়া বর্তমান সময়ে ব্রাজিলের অধিকাংশ খেলোয়ার দারুন ছন্দে আছে। বিশেষ করে নেইমার। নেইমার যদি ফাইনালে ঠিকভাবে জ্বলে উঠতে পারে তাহলে জয় নিশ্চিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *