৫০ হাজার ফিলিস্তিনিকে চাকরি দিয়েছে কাতার

ফি’লিস্তিনের ৫০ হাজার গ্রে’জুয়েট ও ক্রিয়েটিভদের ‘তাক্বাত’ উদ্যোগের আওতায় চাকরি দিয়েছে কাতার চ্যারিটি (কিউসি)। অসংখ্য ফি’লিস্তিনিদের কর্মসংস্থান তৈরি করে দেওয়ার ব্যাপারে কিউসি জানায়, এটি

দখলকৃত ফিলিস্তিনের অ’বরুদ্ধ গাজা ও পশ্চিমতীরের ফি’লিস্তিনি পরিবারদের সহায়তার লক্ষ্যে শুরু করা ক্যাম্পেইন ‘প্যালেস্টাইন রিলিফের’ অংশ। এই

উদ্যোগটির লক্ষ্য-উদ্দেশ্য হলো বে’কারত্বের বোঝা কমিয়ে আনা, ফিলিস্তিনি পরিবারগুলোর আর্থিক অবস্থার উন্নতি সাধন এবং যে কোনো কাজের খাতিরে সৃজনশীল যুবকদের ভূমিকা জোরদার করা। ফিলিস্তিনের কেন্দ্রীয়

পরিসংখ্যান ব্যুরোর পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, প্রতি বছর প্রায় ৪০ হাজার ফি’লিস্তিনি যুবক বিভিন্ন উচ্চশিক্ষার প্রতিষ্ঠান থেকে তাদের গ্রে’জুয়েশন শেষ করে। তবে

তাদের বেশিরভাগই কাজের সুযোগ সীমিত হওয়ায় বেকার থাকে। তাছাড়া গত বছর করোনা মহা’মারীর কারণে ৬৬ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি চাকরিজীবী তাদের চাকরি

হা’রিয়েছিলেন বলে বিশ্ব’ব্যাংকের এবছরের রিপোর্টে নিশ্চিত করা হয়। সম্প্রতি বে’কারত্বের হার নিয়ে প্রকাশিত বিশ্বব্যাংকের রিপোর্টটিতে বলা হয়, ৬৬ হাজার ফিলিস্তিনির চাকরি হারানোর ঘটনায় বে’কারত্বের হার

এখন ২৭.৮ এ গিয়ে পৌঁছেছে। শ্রমবাজারে কর্মচারীর সংখ্যা ২০১৯ এর ৯ লক্ষ ৫১ হাজার থেকে নেমে গিয়ে ২০২০ সালে ৮ লক্ষ ৮৪ হাজারে গিয়ে ঠেকেছে। অবরুদ্ধ গাজায় বেকারত্বের হার এখন ৫০ শতাংশ এবং

জনসংখ্যার ৬০ শতাংশই এখন দা’রিদ্রসীমার নীচে বাস করছে। এরইমধ্যে বিগত কয়েক মাসে ইহুদিবাদী স’ন্ত্রাসীদের অ’বৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের ধ্বংসযজ্ঞের

ফলে অবরু’দ্ধ শহরটির স্বাস্থ্য ও শিক্ষাখাতের সুযোগ- সুবিধা, রাস্তাঘাট, আবাসিক ভবন, বিদ্যুৎ উৎপাদন ও জল

সরবরাহ কেন্দ্রসহ বেশিরভাগ অব’কাঠামোই ধ্বং”স হয়ে যায়। জাতিসংঘের ফিলিস্তিন বিষয়ক ত্রাণ ও কর্ম সংস্থা (ইউএনআরডাব্লিউএ) তথ্যমতে, সম্প্রতি ফিলিস্তিনে

ইসরাইলের আ’গ্রাসনের ফলে ৭৫ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি বাস্তুহারা হয়। তাদের মধ্যে আবার ২৮ হাজার ৭ শত জন নিজেদের বা’ড়িঘর ধ্বং’স হয়ে যাওয়ায়,

বাকিরা বোমা হামলা থেকে বাঁচতে ইউএনআরডাব্লিউএ‘র স্কুলগুলোতে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নিয়েছে। বিভিন্ন দিক বিবেচনায় কিউসি কর্তৃক

ফি’লিস্তিনিদের কর্ম’সংস্থান তৈরির উদ্যোগকে বিশ্বের অন্যতম সেরা ইউনিক মানবিক উদ্যোগ বলে উল্লেখ করা হচ্ছে। সূত্র: মিডল ইস্ট মনিটর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *