প্রেমের সস্পর্ক করে তরুণীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক, মোবাইলে ভিডিও!

গাজীপুরের টঙ্গীতে এক তরুণীকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত আমিনুল (২৫) জামালপুরে সদরের হাজীপুরের অরাঙ্গাটির শেখবাড়ির মো. নুনু মিয়া ও কহিনুর বেগমের ছেলে। সে টঙ্গীর মিলগেল চুড়ি কারখানার পেছনের একটি বাড়িতে স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া থাকেন।

জানা যায়, আমিনুলের সাথে প্রায় দেড় বছর আগে টঙ্গীর কলাবাগান বস্তির এক তরুণীর সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। দেড় মাস আগে আমিনুল ওই তরুণীকে গাজীপুরের গাছার তারগাছ এলাকার একটি বাসায় নিয়ে ধর্ষণ ও মোবাইল ফোনে তা ভিডিও করে। পরে সেই ভিডিও তরুণীর ইমো অ্যাকাউন্টে পাঠায়। ভিডিওটি এলাকার আরও কয়েকজনের কাছে চলে যায়।

গত ৫ জুলাই ওই ভিডিওকে কেন্দ্র করে টঙ্গীর অলিম্পিয়া স্কুল মাঠে নিয়ে স্থানীয় রিপন, ইব্রাহীম সানি ও পারভেজ ঢালীসহ বেশ কয়েকজন আমিনুলকে মারধর করে এবং ভয় দেখিয়ে মীমাংসার কথা বলে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা দাবি করে এবং আমিনুলের কাছ থেকে তার জাতীয় পরিচয়পত্র ও স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর রেখে ছেড়ে দেয়।

এ ব্যাপারে রিপনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমরা তরুনির অভিভাবকদের সাথে নিয়ে মেয়েটির ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে স্থানীয়দের নিয়ে মীমাংসার চেষ্ঠা করেছিলাম মাত্র। বাকিসব অভিযোগ মিথ্যা বলে জানান তিনি।

টঙ্গী পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ শাহ আলম জানান, প্রায় দেড় মাস আগে গাছা থানার তারগাছ এলাকায় একটি মেয়েকে ধর্ষণ করে মোবাইলে ভিডিও ধারণ করেছে বলে আমি শুনেছি, তবে এখনো এ ব্যাপারে লিখিত কোন অভিযোগ পাইনি। তবে আমি বিষয়টি অবগত হয়েছি এবং প্রয়োজনীয় প্রদক্ষেপ গ্রহণের চেষ্ঠা চালাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *