চীন সীমান্তে মোতায়েন ২ লাখ ভারতীয় সেনা, ফের উত্তেজনার আশঙ্কা

গত বছর লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় ও চীনা সেনাদের মধ্যে সং’ঘর্ষের পর থেকেই সীমা’ন্তে উ’ত্তাপ বেড়েছে। গত কয়েক মাস ধরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার

জন্য আলোচনা চালাচ্ছে দুই দেশ। এর মধ্যেই চীন সীমান্তে ভা’রত আরও ৫০ হাজার সেনা মো’তায়েন করেছে বলে জানা গেছে। খবর ব্লুম’বার্গ ও আনন্দবাজার

পত্রিকার। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত কয়েক মাসে ভারত-চীন সী’মান্তে তিনটি এলাকায় সেনা মোতায়েন বেড়েছে। এই মু’হূর্তে ২ লাখ ভারতীয় সেনা মোতায়েন

রয়েছে চীন সী’মান্তে, যা গত বছরের তুলনায় ৪০ শতাংশ বেশি। যদিও এই বিষয়ে চীনের পক্ষ থেকে অন্য ধরনের প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে। সো’মবার চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্র’ণালয়ের মুখপাত্র ওয়াং ওয়েনবিন জানিয়েছেন,

দু’দেশের সীমান্তবর্তী এলাকায় পরি’স্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এখনও তাদের আলোচনা চলছে। তাই এই মুহূর্তে ভারত, চীন দু’দেশেরই উচিত আ’লোচনাকে সম্মান দিয়ে সীমান্ত এলাকা থেকে সেনা যত স’ম্ভব কমিয়ে পরিস্থিতি আরও

ঠান্ডা করা। এদিকে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ফের সে’নাবাহিনীর উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে বসার জন্য রাজি হয়েছে দু’দেশ। কবে বা

কোথায় সেই বৈঠক হবে সেই বিষয়ে এখনও কিছু ঠিক হয়নি। গত কয়েক মাস ধরে প্রকৃত নি’য়ন্ত্রণ রেখা নিয়ে আলোচনা চালাচ্ছে ভারত ও চীন। ই’তিমধ্যেই প্যাংগং

হ্রদের উত্তর ও দ’ক্ষিণ এলাকা থেকে সেনা সরিয়েছে দু’দেশ। বাকি এলাকা থেকে সেনা সরানো নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা। কি’ন্তু তার মধ্যেই ভারতের

সেনা মোতায়েনের খবর চীন ‘সী’মান্তের বর্তমান পরিস্থিতি ফের বদল করতে পারে বলেই মনে করছে কূটনৈতিক মহলের একাংশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *