আবারও দুই ইসরাইলি জঙ্গি ড্রোন ভূপাতিত করল ফিলিস্তিনিরা!

বড় একটি সাফল্য পেল ফিলিস্তিনিরা। গাজায় হামলা করতে আসা ১০টি ইসরাইলি গোয়েন্দা ও জঙ্গি ড্রোনের মধ্যে দুটিকে গুলি করে ভূপাতিত করেছে ফিলিস্তিনিরা। শুক্রবার এ খবর জানিয়েছে

ফিলিস্তিনি সংবাদপত্র কুদস প্রেস।বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে কুদস প্রেস বলেছে, ‘ইসরাইলি ড্রোনগুলো গাজার আকাশে প্রবেশ করে এবং পার্শ্ববর্তী আল-শেজাইয়া, আল-জাইতুন ও আল-সেবা অঞ্চলে উড়ছিল।

পরে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ সংগঠনগুলো ওই ড্রোনগুলোকে লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ করেলে দু’টি ড্রোন ভূপাতিত হয়। এ সময় ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর নেতারা জনগণকে সতর্ক থাকতে বলেন। তারা আশঙ্কা করছেন, ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর নেতাদের হত্যা করার জন্য ড্রোন হামলা করার পরিকল্পনা করছে ইসরাইল।

ফিলিস্তিনিদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে, ড্রোন হামলা থেকে বাঁচতে তারা যেন বাড়ির জানালা বন্ধ রাখেন। ইসরাইলের ওই ড্রোনগুলো আধা ঘণ্টা গাজার আকাশে ওড়ার পর চলে যায়। সূত্র : মিডলইস্ট মনিটর

নিজেদের রক্ষার জন্য যুদ্ধ বন্ধের ধর্ণা দিয়েছিলো ইসরাইল -গোপন তথ্য ফাঁস !

তুমুল আক্রমন-পাল্টা আক্রমনের এক পর্যায়ে যুদ্ধবিরতিতে যায় ইসরায়েল। ফিলিস্তিনিদের বিপক্ষে ১১ দিনের যুদ্ধে ভয়াবহ রকেট হামলা ঠেকাতে ব্যর্থ হয়েছিল ইসরায়েল। ইহুদিবাদী দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু শেষে যুদ্ধবিরতির

জন্য আমেরিকার কাছে ধর্না দিয়েছিলেন বলে সংবাদমাধ্যম ইয়েদিয়োথ অহরোনথ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।আরো জানা গেছে, ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস এবং ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের ভয়াবহ রকেট

হামলার মুখে যুদ্ধের ১১তম দিনে নিরুপায় হয়ে আমেরিকার মধ্যস্থতা কামনা করে ইসরায়েল। যুদ্ধের বিষয়ে যা ধারণা করা হয় এক্ষেত্রে বাস্তবতা ছিল তার বিপরীতে। অর্থাৎ ইসরায়েল এই যুদ্ধ করার জন্য এবং যুদ্ধবিরোধী অর্জনের জন্য প্রচেষ্টা চালিয়েছে।

এদিকে পত্রিকাটির তথ্য অনুসারে, ইসরায়েল জো বাইডেন প্রশাসনের সঙ্গে যুদ্ধবিরতির জন্য বারবার যোগাযোগ করেছে যাতে আমেরিকা মিশর এবং আরো কয়েকটি দেশের উপর চাপ সৃষ্টি করে যুদ্ধবিরতির ব্যবস্থা করে। তবে জো বাইডেন প্রশাসন এ ব্যাপারে তেমন একটা আগ্রহ দেখাননি। সূত্র : পার্সটুডে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *