ইসরাইলের প্রেসিডেন্ট হলেন আইস্যাক;এবার নেতানিয়াহুর পালা !

ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুকে ক্ষমতা থেকে অপসারণে বিরোধীরা যখন একটি জোট গঠনের তুমুল তোড়জোড় শুরু করেছেন তখন দেশটির পার্লামেন্টে অনুষ্ঠিত ভোটে দেশটির ১১তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন দেশটির প্রবীণ রাজনীতিক হারজোগ আইস্যাক।

বুধবার ইসরায়েলের পার্লামেন্ট নেসেটে ভোটে তিনি নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। খবর এএফপি, জেরুজালেম পোস্ট। বর্তমান প্রেসিডেন্ট রিউভেন রিভলিনের স্থলাভিষিক্ত হওয়ার এই লড়াইয়ে দেশটির সাবেক প্রধান শিক্ষিকা মিরিয়াম পেরেৎজকে হারিয়েছেন হারজোগ (৬০)।

২০১৪ সালে দেশটির পার্লামেন্টের আলঙ্কারিক প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন রিউভেন রিভলিন। প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর টানা ১২ বছরের শাসনের অবসানের লক্ষ্যে দেশটির ডান-বাম-কট্টরপন্থী দলগুলো জোট গঠনের আলোচনায় বুধবার ১১ ঘণ্টার এক বৈঠকে মিলিত হন।

নেতানিয়াহুকে অপসারণ করে নতুন প্রশাসন গড়ার লক্ষ্যে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ইসরায়েলের পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট পদের ক্ষমতার পরিধি খুবই সীমিত। প্রাথমিকভাবে পার্লামেন্টে ভোটাভুটির মাধ্যমে নির্বাচিত হওয়ার পর প্রেসিডেন্ট দেশটির রাজনৈতিক দলগুলোর নেতাদের সঙ্গে বৈঠক এবং সরকার গঠনের জন্য সম্ভাব্য প্রার্থীদের সঙ্গে কাজ করেন তিনি।

আর দেশটির নির্বাহী কর্তৃত্ব এককভাবে থাকে প্রধানমন্ত্রীর। তবে প্রেসিডেন্ট অপরাধীদের রাষ্ট্রীয় ক্ষমার ঘোষণা দিতে পারেন; প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু প্রতারণা, ঘুষগ্রহণ এবং বিশ্বাস ভঙ্গের অভিযোগে বিচারের মুখোমুখি হওয়ায় নতুন প্রেসিডেন্টের এই ক্ষমা ঘোষণার ক্ষমতা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

হারজোগ আইস্যাক আগামী ৯ জুলাই ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেবেন। ২০০৩ সালে ইসরায়েলের পার্লামেন্টে প্রথমবারের মতো নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *