ছেলের বিয়ের দিন মা জানতে পারেন হবু পুত্রবধূ তারই মেয়ে !

ছেলের বিয়ের দিন হারানো মেয়েকে খুঁজে পেলেন মা। এমনটাও ঘটে বাস্তবে! কিন্তু কীভাবে? সেই হারানো মেয়ের সঙ্গেই তো বিয়ে হতে চলেছে তাঁর ছেলের!তবে কী গেম অফ থ্রোনসের পুনরাবৃত্তি হবে? ভাইবোনের মধ্যেই এতদিনের প্রেমের সম্পর্ক! তবু বিয়েটা হল!কিন্তু কীভাবে?

চিনের জিয়াংসু প্রদেশের ঘটনা। ছেলের বিয়ের তোড়জোড় চলছিল। ইতিমধ্যে হবু বৌমাকে দেখেই ছেলের মা চমকে উঠলেন। হাতের জরুলটা চেনা চেনা ঠেকছে যে! ছোটবেলায় তাঁর হারিয়ে যাওয়া মেয়ের হাতেও যে এমনটাই ছিল। মায়ের মন একইসঙ্গে আশঙ্কা ও উল্লাসে নেচে উঠল।

পাত্রীর অভিভাবককে না জিজ্ঞেস করলেই নয়। “আচ্ছা, সত্যি কথা বলুন তো, মেয়েটি আপনাদের দত্তক সন্তান নয় তো?” বেয়ানের প্রশ্ন শুনে চমকে উঠলেন পাত্রীর মা। কীভাবে জানাজানি হল! তাঁরা তো এতকাল গোপন রেখেছিলেন সব তথ্য। হ্যাঁ, এই মেয়ে তাঁর গর্ভজাত নয়। কান্নায় ভেসে পাত্রীর অভিভাবক জানালেন সব কথা।

প্রায় ২০ বছর আগে রাস্তার এক ধারে পড়েছিল এক শিশুকন্যা। তাকেই যত্ন করে তুলে এনে নিজের মেয়ের মতো করেই মানুষ করেছেন এতকাল। পাত্রের মায়ের সংশয় দূর হল। এদিকে এতদূর জানার পর বিস্ময়ে হকচকিয়ে যায় কন্যা নিজেও। বিয়ের রোমাঞ্চ ভুলে আসল বাবা-মাকে খুঁজে পাওয়ার আনন্দেই আত্মহারা হয়ে ওঠে সে। কী এক অদ্ভুত পরিস্থিতি! মা এবং মেয়ে দুজন দুজনকে জড়িয়ে ধরে আনন্দাশ্রুতে ভিজিয়ে দেন পরস্পরকে।

কিন্তু তারপর? বিয়েটা কী আদৌ সম্ভব? জানাজানি হলে স্থানীয় মানুষজন কেউই তো মেনে নিতে পারবেন না।

সমাধান করেছিলেন ছেলের মা-ই। জানালেন, ছেলেও তাঁর গর্ভজাত নয়। কন্যাবিয়োগের যন্ত্রণার সামাল দিতে এই শিশুকে দত্তক নিয়েছিলেন তাঁরা। তারই আজ বিয়ের দিন। অতএব, নিজের মেয়ের সঙ্গে ধুমধাম করে বিয়ে দিলেন আর এক পুত্রর। পাত্রপাত্রী দুজনেরই এখন দুজোড়া বাবা-মা। বিয়ে যে পরিবারেরও বন্ধন। সকলেই উৎসবের জোয়ারে ভেসে গেলেন এরপর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *