কৃষ্ণসাগর অঞ্চলকে শান্তির অববাহিকা বানাবে তুরস্ক: এরদোগান

আলোচনার মাধ্যমে ইউক্রেন ও রাশিয়ার সীমান্তের উ’ত্তেজনা মিটিয়ে ফেলার আহ্বান জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। তিনি বলেছেন, কৃষ্ণ’সাগর অ’ঞ্চলকে শান্তির অ’ববাহিকায় রূপ দেওয়ায়

তু’রস্কের উদ্দেশ্য। ইউ’ক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলিমার জিলনস্কির সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ উদ্দেশ্য ব্যক্ত করেন। ই’স্তানবুলের হুবার ম্যানশনে এরদোগান ও জিলন’স্কির মধ্যে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

তুরস্ক-ইউক্রেনের উচ্চ-পর্যায়ের কৌ’শলগত সহযোগিতা কাউন্সিলের নবম বৈঠকে অংশ নিতে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট আং’কারায় আসেন। বৈঠকে তিনি জানান, সংলাপের মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে পূর্ব ইউক্রেনের উত্তেজনা

কমিয়ে আনা যাবে। ইউক্রেনের ভূ’খণ্ডগত অখণ্ডতা ও আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে এই সমাধান বের করতে হবে। রাশিয়ার মূল ভূ’খণ্ডের সঙ্গে ক্রি’মিয়াকে একীভূত করায় স্বীকৃতি দেবে না বলে সি’দ্ধান্ত নিয়েছে তুরস্ক।

এরদোগান বলেন, ক্রি’মিয়ার ভূ’মিতে ইউক্রেনের উদ্যোগে তুরস্কের সমর্থন রয়েছে। ভলিমার জি’লনস্কি বলেন, এ অঞ্চলের বিদ্যমান হুমকি ও তারি মো’কাবিলার বিষয়ে আংকারা ও কিয়েভের দৃষ্টি’ভঙ্গিতে মিল রয়েছে। ভূখণ্ডগত

অখণ্ডতায় ই’উক্রেনকে তু’রস্কের সমর্থন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ইউক্রেনের অধিকৃত ভূখণ্ড ড’নবাস ও ক্রিমিয়া পরিস্থিতি নিয়ে আমরা তুরস্ককে বি’স্তারিত তথ্য দেব। প্রতিরক্ষা শিল্পের সহযোগিতা ও মুক্ত-বা’ণিজ্য চুক্তি ও পর্যটন ছিল তাদের আলোচনার মূল বিষয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *