গ্রামে কর্মসৃজনের জন্য ৮০৭ কোটি, ঈদে বরাদ্দ ৬৭২ কোটি টাকা

দরিদ্র ও নিম্নবিত্ত মানুষ যাতে মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলা করতে পারে তার জন্য পল্লী অঞ্চলে কর্মসৃজনের জন্য ৮০৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকা এবং পবিত্র রমজান ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ৬৭২ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়ার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেছেন, এর মাধ্যমে দেশের প্রায় ১ কোটি ২৪ লাখ ৪২ হাজার নিম্নবিত্ত পরিবার উপকৃত হবে।

বাংলা নববর্ষ-১৪২৮ এর প্রাক্কালে আজ সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে নববর্ষের শুভেচ্ছা ও পবিত্র রমজানের মোবারকবাদ জানান। গত এক বছরের বেশি সময়ে কোভিড-১৯ মহামারিতে যারা মারা গেছেন তাদের পরিবারের সদস্যদের গভীর সমবেদনা জানান তিনি।

গেল বছর ঘোষণা করা ১ লাখ ২৪ হাজার ৫৩ কোটি টাকার ২৩টি প্রণোদনা প্যাকেজের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে বলেন, সেই কার্যক্রম আমাদের এখনো অব্যাহত আছে।

তিনি বলেন, ‘কলকারখানায় যাতে উৎপাদন ব্যাহত না হয় সে ব্যবস্থা আমরা নিয়েছি। কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির উদ্যোগ নিয়েছি। আমরা দিন মজুর, পরিবহন শ্রমিক, হকার, রিকশাওয়ালা, দোকান কর্মচারী, স্কুল শিক্ষক, মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থী, মসজিদের ইমাম-মোয়াজ্জিন, অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের সেবাদানকারী, সাংবাদিকসহ নিম্নআয়ের নানা পেশার মানুষকে সহায়তা দিয়েছি। প্রায় আড়াই কোটি মানুষকে বিভিন্ন সরকারি সহায়তার আওতায় আনা হয়েছে।’

মানুষের জীবন রক্ষার পাশাপাশি দেশের অর্থনীতি, মানুষের জীবন-জীবিকা যাতে সম্পূর্ণভাবে ভেঙে না পড়ে সেদিকে সরকারের কঠোর দৃষ্টি থাকার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সকলের সহযোগিতায় আমরা বেশ কিছু কার্যক্রম হাতে নিয়েছিলাম যারফলে গত বছর করোনাভাইরাস মহামারিজনিত প্রভাব আমরা সফলভাবে মোকাবিলা করতে সক্ষম হয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *