বিশ্ববিদ্যালয়টি আমার কাছে ভুয়া মনে হয়নি: মমতাজ

লোকগানের জনপ্রিয় শিল্পী মমতাজ ভারতের গ্লোবাল হিউম্যান পিস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেয়েছেন। এমন খবর প্রকাশ হওয়ার পর বি’ত’র্ক ওঠে মমতাজের পাওয়া সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রির গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে।

কারণ ভারতে গ্লোবাল হিউম্যান পিস ইউনিভার্সিটি নামে বৈ’ধ কোনো বিশ্ববিদ্যালয় নেই বলে দাবি অনেকের। প্রতিষ্ঠানটি ডক্টরেট ডিগ্রি বিক্রি করে বলেও মন্তব্য করেন কেউ কেউ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই নিয়ে চলছে আলোচনা।

এমন অ’ভিযো’গের ভি’ত্তিতে মঙ্গলবার যোগাযোগ করা হয় দেশের ‘ফোক সম্রাজ্ঞী’ মমতাজের সঙ্গে। সমকালকে তিনি বলেন, ‘আমার কাছে বিশ্ববিদ্যালয়টি ভু’য়া মনে হয়নি। আর ভু’য়া বলে যে বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম আসছে সেটা এ বিশ্ববিদ্যালয় নয়। মমতাজ আরও বলেন, ‘আমাকে প্রতিষ্ঠানটি প্রপার ওয়েতে সম্মানসূচক ডিগ্রি প্রদান করেছে। আমি ওখানে উপস্থিত হয়ে এটা গ্রহণ করেছি। ওই আয়োজনে শত শত মানুষ ছিলেন। আমার হাতে এই সম্মাননা তুলে দেন বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান পি ম্যানুয়েল।

একই সময়ে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেছেন চেন্নাইয়ের সাবেক জেলা জজ থিরু এজে মুরুগানানথাম ও তামিলনাড়ুর আধ্যাত্মিক ধর্মগুরু খলিফা মা’স্তা’ন সাহেব। সেখানে হাজির হয়ে বিষয়টি কোনোভাবেই ভু’য়া মনে হয়নি আমার কাছে।’

ডক্টরেট ডিগ্রি নিয়ে সোমবার দেশে ফিরেছেন মমতাজ। তখন অনুভূতি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এটা আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া। ৩০ বছর ধরে আমি মা-মাটির গান করে চলেছি; মানুষের সেবা করেছি। এই প্রাপ্তি কাজ করতে আমাকে আরও অ’নুপ্রা’ণিত করবে।’

গ্লোবাল হিউম্যান পিস ইউনিভার্সিটি জানায়, শিল্পী হিসেবে সাতশ’র বেশি একক অ্যালবামের রেকর্ড, সুদীর্ঘ ৩০ বছর বাংলা গানকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরা ও সমাজসেবা ছাড়াও নানামুখী কর্মকা’ণ্ডে সম্পৃক্ত রেখে নিজেকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন মমতাজ। যে কারণে তারা বিশেষ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাকে ‘ডক্টর অব মিউজিক’ ডিগ্রি প্রদান করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *